রাজশাহীতে তাপদাহে অতিষ্ঠ প্রাণ

রাজশাহী

রাজশাহীতে বুধবার সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৩৮ দশমিক ৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস। মঙ্গলবার সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিলো ৩৭ দশমিক ২ ডিগ্রি সেলসিয়াস। রাজশাহী আবহাওয়া অফিসের তথ্য অনুযায়ি, সোমবার এ তাপমাত্রা ছিলো ৩২ দশমিক ২ ডিগ্রি সেলসিয়াস। আগের দিন রোববার সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিলো ৩০ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

রাজশাহী আবহাওয়া অফিসের দেয়া হিসেবে চোখ রাখলেই বোঝা যায় যে, তাপমাত্রার পারদের মাত্রাটি কিভাবে উপরে উঠছে। পারদ যতো উঠছে ততোই বাড়ছে গরম। রোববার থেকে বুধবারের মধ্যে রাজশাহীর তাপমাত্রা বেড়েছে ৮ দশমিক ৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

হঠাৎ করে তাপমাত্রা বেড়ে যাওয়ায় রাজশাহীর জনজীবন প্রায় বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে। সকাল থেকেই তাপ ছড়াতে শুরু করে সূর্য। অগ্নিঝরা তাপ বেলা বাড়ার সাথে হয়ে উঠে আরো প্রখর। উত্তপ্ত হয়ে উঠে রাজশাহী। প্রাণিকুলের হাঁস-ফাঁস অবস্থা।

এদিকে, প্রচণ্ড গরমে খেটে খাওয়া মানুষরা পড়েছে সবচেয়ে ভোগান্তির মুখে। মাঠে-ঘাটে মানুষ বেশি সময় ধরে কাজ করতে পারছেন না। তাপমাত্রার প্রখরতায় মানুষের দূদর্শা চরমে পৌঁছায়।

নগরীর হেতেম খাঁ এলাকার রিকশাচালক আমজাদ হোসেন। বুধবার দুপুরে রিকশা থামিয়ে বসে ছিলেন দড়িখবোনা এলাকায় একটি চায়ের দোকানে। তিনি জানান, কোনোভাবেই দুই ঘণ্টার বেশি সময় এক টানা রিকশা চালানো সম্ভব হচ্ছে না। সামান্য কিছুক্ষণ রিকশা চালিয়ে ছায়ায় বিশ্রাম নিতে হচ্ছে।

গরমের কারণে সাধারণ মানুষ বিশেষ প্রয়োজন ছাড়া বাড়ির বাইরে বের হচ্ছে না। দুপুরে রাস্তাঘাটগুলো অনেকটা ফাঁকা।
রাজশাহী আবহাওয়া অফিসের উচ্চ পর্যবেক্ষক হেলেন খাতুন জানান, এ মৌসুমে গরম হবে এটাই স্বাভাবিক। এ তাপমাত্রা আরো বাড়তে পারে।

খবরঃ দৈনিক সানশাইন

9 thoughts on “রাজশাহীতে তাপদাহে অতিষ্ঠ প্রাণ

Comments are closed.