রাজশাহীতে ধর্ষণ ও বিভিন্নভাবে নির্যাতনের শিকার ২৮ নারী-শিশু

রাজশাহী

রাজশাহীতে গত অক্টোবর মাসে হত্যা ১, আত্নহত্যা ও হত্যার চেষ্টা ৯, ধর্ষন, যৌন নির্যাতন ও নির্যাতন ১২ এবং বিভন্ন ভাবে নির্যাতনের শিকার হয়েছেন ২৮ জন নারী ও শিশু।

উন্নয়ন সংস্থা লেডিস অর্গানাইজেশন ফর সোসাল ওয়েলফেয়ার (লফস) অত্র জেলায় দীর্ঘদিন যাবৎ নারী ও শিশুর উন্নয়নে কাজ করছে। মানবাধিকার সংগঠন হিসবে লফস সংস্থার ডকুমেন্টেশন সেল থেকে রাজশাহীর প্রচারিত দৈনিক পত্রিকার সংবাদের ভিক্তিতে নিয়মিত নারী ও শিশু নির্যাতনের পরিস্থিতি প্রকাশ করে। এদিকে এসিডি জানিয়েছে গত মাসে এ অঞ্চলে নারী ২২ এবং শিশু ১৮ জন নির্যাতনের শিকার হয়েছে।
এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য তানোরে উপজেলায় যৌতুকের দাবিতে পাষণ্ড স্বামী ফরিদা নামের এক গৃহবধুর দুই কান ছিড়ে ফেলে। বাঘায় ছেলের উপর অভিমান করে তুলসি (৫০) নামে এক মায়ের আত্বহত্যা, নগরীতে যৌতুকের দাবিতে গৃহবধু সাথীকে গলা কেটে হত্যার চেষ্ঠা করে পাষণ্ড স্বামী, নগরীতে ৫২ বছর বয়সী এক গৃহবধুর আত্বহত্যা, নগরীতে আনিকা খাতুন নামে বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রীর আত্বহত্যা, কলেজ ছাত্রীকে অপহরন করে ধর্ষনের অফিযোগ উঠেছে আপন ফুপার বিরুদ্ধে, দুর্গাপুরে সুপ্তি নামের ১৪ বছর বয়সী ছাত্রীর আত্বহত্যা, নগরীর দাস পুকুর এলাকায় সাবেক কমিশনার কার্যালয়ে নিলয় নামের ১৫ বছর বয়সী এক শিশুকে নির্মম ভাবে নির্যাতন, বাঘায় মোবাইল ফোন চুুরির অফিযোগে ৭ম শ্রেনীর ছাত্র মনিরুল ইসলামকে হাত-পা বেধে ঝুলিয়ে নির্মম নির্যাতনের অভিযোগ, নগরীতে ১৭ বছর বয়সী কালজ ছাত্রী মাহবুববার আত্বহত্যা, পবায় চার বছরের শিশুকে ধর্ষনের অভিযোগ, মোহনপুরে জমি সংক্রান্ত জেরে ১৭ বছর বয়সী কলেজ ছাত্রকে হত্যা, নগরীতে ৪ বছর বয়সী শিশু ধর্ষন এবং মোহনপুর উপজেলায় ছাত্রীকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ধর্ষণের অভিযোগ উঠে শিক্ষকের বিরুদ্ধে। ঘটনাগুলো সমাজে উদ্বেগ সৃষ্টি করছে।

সংস্থগুলো মনে করে এ অঞ্চলে নারী ও শিশু নির্যাতন পরিস্থিতি ক্রমশই অবনতি ঘটছে যা সকলের জন্য উদ্বেগজনক। নারী ও শিশু নির্যাতনের ক্ষেত্রে যৌতুক ও পরকীয়া অনেকাংশে দায়ী। এছাড়া পারিবারিক কলহ ও প্রেম ঘটিত কারনে হত্যা-আত্নহত্যা ও অমানুবিক নির্যাতনের মতো ঘটনা ঘটছে। সংস্থাগুলো আরো জানায় অপরাধীদের শাস্তি নিশ্চিত করা না গেলে ক্রমশই অপরাধীরা উৎসাহিত হবে এবং অপরাধ মাত্রা বৃদ্ধি পাবে। তারা সকল নারী-শিশু নির্যাতন ঘটনাগুলোর সুষ্ঠু তদন্ত স্বাপেক্ষে অপরাধীর কঠোর শাস্তির দাবী জানান।

খবরঃ দৈনিক সানশাইন