রাজশাহীতে নিরাপদ সড়ক আন্দোলন থেকে বহিরাগত যুবক আটক

রাজশাহী

নিরাপদ সড়কের দাবিতে জেলায় জেলায় রাস্তায় অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভ করেছে শিক্ষার্থীরা। এ সময় তারা সড়কের ট্রাফিক ব্যবস্থার নিয়ন্ত্রণ নিয়ে যানবাহনের কাগজপত্র পরীক্ষা করে।

শনিবার বেলা ১১টার দিকে কালো ব্যাচ পড়ে রাজশাহী নগরের সাহেববাজার জিরোপয়েন্টে বিক্ষোভ করে শিক্ষার্থীরা। সেখান থেকে বহিরাগত এক যুবককে আটক করে থানায় নিয়ে যায় পুলিশ। পরে সেখানে কালো ব্যাচ পড়ে উপস্থিত হন জেলা প্রশাসক এসএম আব্দুল কাদের। তিনি আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের সঙ্গে কথা বলেন এবং দোষিদের শাস্তির ব্যবস্থা করার আশ্বাস দেন।

এদিকে, নিরাপদ সড়কের দাবিতে নাটোরের মাদ্রাসা মোড়ে শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভে অংশ নেন স্থানীয় সংসদ সদস্য শফিকুল ইসলাম শিমুল। সেখানে সংসদ সদস্যসহ শিক্ষার্থীরা বিভিন্ন গাড়ির কাগজপত্র পরীক্ষা করেন। এ সময় তিনি ট্রাফিক ব্যবস্থা নিয়ন্ত্রণে কঠোর পদক্ষেপ নেয়ার জন্য পুলিশকে নির্দেশ দেন। এমপির নির্দেশের পর শিক্ষার্থীরা রাস্তা ছাড়ে।

অন্যদিকে, নওগাঁর কেডির মোড়ে শিক্ষার্থীরা রাস্তায় নামার চেষ্টা করলে পুলিশ বাধা দেয়। পরে তারা স্কুলে ফিরে যায়।

অপরদিকে, জয়পুরহাটের আমতলি মোড়ে সরকারি বালিকা বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা রাস্তায় নেমে ট্রাফিক ব্যবস্থা নিয়ন্ত্রণ করে। এ সময় তারা যানবাহনের কাগজপত্র পরীক্ষা করে।

নিরাপদ সড়কের দাবিতে বগুড়ার সাত মাথা মোড়ে বিক্ষোভ করে শিক্ষার্থীরা। বিক্ষোভ চলাকালে সেখানে মোতায়েন করা হয় প্রচুর পরিমান পুলিশ।

চাঁপাইনবাবগঞ্জের বিভিন্ন মোড়ে অবস্থান নেয় শিক্ষার্থীরা। এ সময় তারা ট্রাফিক ব্যবস্থার নিয়ন্ত্রণ ও যানবাহনের কাগজপত্র পরীক্ষা করে।

এছাড়াও পাবনা শহরের আব্দুল হামিদ রোর্ডে অবস্থান নিয়ে ট্রাফিক ব্যবস্থা নিয়ন্ত্রণ করে শিক্ষার্থীরা। এ সময় তারা যানবাহনের কাগজপত্র পরীক্ষা করে।

গত ২৯ জুলাই বাসচাপায় রমিজ উদ্দিন ক্যান্টনমেন্ট কলেজের দুই শিক্ষার্থীর মৃত্যুর পর নিরাপদ সড়কের দাবিতে আন্দোলনে নামে ঢাকার সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা।

তাদের আন্দোলন থেকে ওঠা ৯টি দাবি পূরণের ঘোষণা দিয়ে সরকারের পক্ষ থেকে শিক্ষার্থীদের ক্লাসে ফেরার আহ্বান জানানো হলেও শুধু আশ্বাসে সন্তুষ্ট নন শিক্ষার্থীরা।

নিরাপদ সড়কের দাবিতে শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের পাল্টায় পবিহন মালিক-শ্রমিকরা বাস বন্ধ রেখেছে মালিক শ্রমিকরা। শিক্ষার্থীরা অবরোধ তৈরি না করে শুধু এসব গাড়ি থামিয়ে চালকদের ও গাড়ির লাইসেন্স দেখতে চাচ্ছে।

খবর কৃতজ্ঞতাঃ ডেইলি সানশাইন