রাজশাহীতে পণ্যের মূল্য নিয়ন্ত্রণে অভিযান, ব্যবসায়ীদের ক্ষোভ

রাজশাহী

রাজশাহীতে পণ্যের মূল্য নিয়ন্ত্রণের জন্য মাঠে নেমেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। গতকাল সোমবার বিকেলে নগরের নিউমার্কেটে এ অভিযান চালানো হয়। তবে এ অভিযান নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেন ব্যবসায়ীরা। পরে অভিযান সংক্ষিপ্ত করে চলে যান আদালত।

ব্যবসায়ীদের দাবি, তাঁদের না জানিয়েই এই অভিযান চালানো হয়। তা ছাড়া ব্যবসা পরিচালনায় তাঁদের একটা খরচ আছে। এই খরচ যোগ করে তাঁদের কেনাবেচা করতে হয়। ম্যাজিস্ট্রেটরা তা বুঝবেন না। তাই আদালত এসে মূল্য নির্ধারণ করে দিলে তাঁরা ব্যবসা করতে পারবেন না।
আদালত সূত্রে জানা গেছে, বিকেলে রাজশাহী জেলা ম্যাজিস্ট্রেট রুমন দে ও তাহমিনা আক্তার নগরের নিউমার্কেটে অভিযান চালান। জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের ‘ডিলিং লাইসেন্স’ না থাকায় তাঁরা প্রথমে সাত্তার ব্রাদার্স নামের একটি প্রতিষ্ঠানকে ৫ হাজার টাকা এবং প্রসাধনসামগ্রীর অপর একটি দোকানকে ৫ হাজার টাকা জরিমানা করেন। একই সঙ্গে অবৈধ উপায়ে আমদানি করা প্রসাধনসামগ্রী ধ্বংস করা হয়।

এরপর আদালত পণ্যের মূল্য যাচাইয়ে পাঁচটি দোকানে অভিযান চালান। কিন্তু তাদের কোনো জরিমানা করা হয়নি। এ বিষয়ে ম্যাজিস্ট্রেট রুমন দে প্রথম আলোকে বলেন, এই পাঁচটি দোকানে তাঁরা পণ্যের চালান মূল্য ও দোকানের নির্ধারিত মূল্য যাচাই করে দেখেন। কিন্তু তাতে তেমন কোনো অসংগতি না পাওয়ায় জরিমানা করা হয়নি। ব্যবসায়ীদের তোপের মুখে অভিযান সংক্ষিপ্ত করে চলে আসার ব্যাপারে ম্যাজিস্ট্রেট রুমন দে বলেন, শুধু জরিমানা করাই ভ্রাম্যমাণ আদালতের কাজ নয়। সচেতনতা সৃষ্টি করাও তাঁদের একটি উদ্দেশ্য। এ ব্যাপারে তাঁরা বাজার কমিটির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদককে বলে এসেছেন।

তবে বাজার কমিটির সাধারণ সম্পাদক মঞ্জুর হোসেন বলেন, একটা পণ্য কিনে আনতে রক্ষণাবেক্ষণ খরচ আছে, ভ্যাট-ট্যাক্স আছে। তারপর কতটুকু লাভ করলে চলবে তা ব্যবসায়ী বুঝবেন। কারণ তাঁরা ঋণ নিয়ে ঈদের বাজারে ব্যবসা করার জন্য মাল তুলেছেন।

খবরঃ প্রথম আলো

2 thoughts on “রাজশাহীতে পণ্যের মূল্য নিয়ন্ত্রণে অভিযান, ব্যবসায়ীদের ক্ষোভ

Comments are closed.