রাজশাহীতে পাটজাত মোড়ক ব্যবহারে অভিযান সোমবার শুরু

রাজশাহী রাজশাহী বিভাগ

‘পণ্যে পাটজাত মোড়কের বাধ্যতামূলক ব্যবহার আইন-২০১০’ যথাযথভাবে প্রয়োগ ও বাস্তবায়নের লক্ষ্যে সোমবার (৩০ নভেম্বর) থেকে সারাদেশে একযোগে সাঁড়াশি অভিযান পরিচালিত হবে।

সড়ক, মহাসড়ক, চাল উৎপাদনকারী এলাকাসহ ঢাকার প্রবেশমুখ ও সারাদেশে সপ্তাহব্যাপী এ অভিযান চলবে।

শনিবার (২৮ নভেম্বর) বিকেলে সরকারি এক তথ্য বিবরণীতে রাজশাহী জেলা তথ্য কর্মকর্তা নাফেয়ালা নাসরিন বাংলানিউজকে বিষয়টি জানান।

এতে বলা হয়েছে, আইন অনুযায়ী ধান, চাল, গম, ভুট্টা, সার ও চিনি- এ ছয়টি পণ্যের মোড়কীকরণে পাটের বস্তার ব্যবহার বাধ্যতামূলক করা হয়েছে।

বাংলাদেশ ব্যাংক নির্ধারিত ছয়টি পণ্যের প্যাকেট মোড়কীকরণে পাটের ব্যবহার না করলে, ব্যাংক ঋণ সুবিধা দেওয়া হবে না মর্মে সব তফসিলি ব্যাংকগুলোকে নির্দেশ দিয়েছে।

বাণিজ্য মন্ত্রণালয় নির্ধারিত পণ্য আমদানি ও রফতানিকালে পাটজাত পণ্যের মোড়ক ব্যবহার না করলে তা বাতিল হবে বলে শর্তারোপ করেছে মন্ত্রণালয়।

খাদ্য মন্ত্রণালয় চাতাল মিল মালিকদেরকে পাটের ব্যাগে মোড়কীকরণ করা না হলে, তাদের লাইসেন্স বাতিল করা হবে বলে নির্দেশনা জারি করেছে।

সড়ক পরিবহন সমিতি পাটের ব্যাগ ছাড়া প্লাস্টিক ব্যাগে পণ্য পরিবহন না করার বিষয়ে ঐকমত্যে পৌঁছেছে।

ওই আইনের ১৪ ধারায় পণ্যে পাটজাত মোড়ক ব্যবহার না করে কৃত্রিম মোড়কে কোনো পণ্য বা পণ্যসামগ্রী মোড়কজাতকরণ, বিক্রয়, বিতরণ বা সরবরাহ করলে বা অনুমতি দিলে তিনি অনূর্ধ্ব এক বছর কারাদণ্ড বা পঞ্চাশ হাজার টাকা অর্থদণ্ড অথবা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত হবেন।

এছাড়া ১৫ ধারায় উল্লিখিত অপরাধ পুনঃসংগঠনের ক্ষেত্রে সর্বোচ্চ দণ্ডের দ্বিগুণ দণ্ডে দণ্ডিত হবেন। পরবর্তীতে এ ধরনের অভিযান অব্যাহত থাকবে বলেও জানানে হয় ওই তথ্য বিবরণীতে।

বাংলানিউজ