রাজশাহীতে পানিতে ডুবে বিদ্যালয়, পাঠদান চলছে আম বাগানে

রাজশাহী

গত শুক্র ও শনিবারের টানা বৃষ্টিতে পানিতে ডুবে গেছে দুর্গাপুরের ভাংগীর পাড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়। এরপর থেকে বিদ্যালয়ের ১৫৬ জন শিক্ষার্থীর পাঠদান চলছে বিদ্যালয়ের পাশের একটি আম বাগানে। পানি অপসারনের ব্যবস্থা না থাকায় নষ্ট হতে বসেছে বিদ্যালয়ের কাঠের তৈরী আসবাবপত্র।

বিদ্যালয়ের এমন দুরবস্থার পরেও খোঁজ নেননি কেউ। সরেজমিনে বিদ্যালয়টি দেখতে গিয়ে দেখা গেছে, গত শুক্র ও শনিবারের অসময়ের বৃষ্টিপাতে বিদ্যালয়টির পুরো মাঠসহ সবকটি শ্রেনী কক্ষ ডুবে গেছে। বর্তমানে মাঠে রয়েছে কোমর সমান পানি। আর শ্রেনীকক্ষ গুলোতে রয়েছে হাটু সমান পানি।

শ্রেনীকক্ষে থাকা কাঠের তৈরী আসবাবপত্র গুলোও পানিতে ডুবে নষ্ট হতে বসেছে। বিদ্যালয়ের চাটাইয়ের বেড়া গুলোও পচে খসে পড়ছে। বাধ্য হয়ে বিদ্যালয়ের ১৫৬ জন শিক্ষার্থীর পাঠদান করানো হচ্ছে বিদ্যালয়ের পাশের একটি আম বাগানে।

বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মঞ্জুরুল ইসলাম জানান, পানি অপসারনের ব্যবস্থা না থাকায় পানির দুর্গন্ধ ছড়িয়ে পড়েছে। অপরদিকে, বিদ্যালয়ের সব রকম আসবাবপত্র নষ্ট হয়ে যাচ্ছে। বিষয়টি সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে জানানো হলেও এখনো কোন রকমের পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়নি।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে স্থানীয় কয়েকজন জানান, ২০১০ সালে বিদ্যালয়টি প্রতিষ্ঠার পর প্রতি বছর বিদ্যালয়ের মাঠ সংস্কারের জন্য সরকারী বরাদ্দ আসলেও মাঠ সংস্কার না করেই সরকারী দলের লোকজন তা লুটেপুটে খেয়ে ফেলে।

এমনকি বিদ্যালয়ের বর্তমান পরিস্থিতিতেও পাঠদান ব্যবস্থা স্বাভাবিক করতে এখন পর্যন্ত সরকারী ভাবে নেয়া হয়নি কোন উদ্যোগ। এ ব্যাপারে কথা বলতে উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তার দায়িত্ব প্রাপ্ত সহকারী শিক্ষা কর্মকর্তা মাহমুদা পারভীনের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি একটি মিটিং আছেন বলে জানান।

খবরঃ ডেইলি সানশাইন