রাজশাহীতে বাড়ছে পদ্মায় পানি

রাজশাহী

রাজশাহীতে প্রতিদিনই পদ্মার পানি বাড়ছে। সোমবার রাজশাহীতে বিপদসীমার মাত্র ৪ দশমিক ২ মিটার নীচ দিয়ে পানি প্রবাহিত হয়েছে। সোমবার রাজশাহীতে পদ্মার পানির উচ্চতা পরিমাপ করা হয় ১৪ দশমিক ৩০ মিটার।

রোববারে যা ছিলো ১৪ দশমিক ১১ মিটার এবং শনিবারে পানির উচ্চতা ছিলো ১৩ দশমিক ৮৭ মিটার। রাজশাহী পদ্মার পানির বিপদসীমার লেভেল হচ্ছে ১৮ দশমিক ৫০ মিটার।

পানি উন্নয়ন বোর্ডের গেজ রিডার এনামুল হক বলেন, গত কয়েকদিন ধরেই রাজশাহীতে পদ্মার পানি বাড়ছে।
গত ১৮ বছরে রাজশাহীতে পদ্মা নদীর পানি বিপদসীমা অতিক্রম করেছে মাত্র দু’বার। এর মধ্যে ২০০৪ থেকে ২০১২ সাল পর্যন্ত টানা ৮ বছর রাজশাহীতে পদ্মার পানি বিপদসীমা অতিক্রম করেনি। কেবল ২০০৩ সালের ১৯ সেপ্টেম্বর রাজশাহীতে পদ্মার সর্বোচ্চ উচ্চতা ছিল ১৮ দশমিক ৮৫ মিটার।

এরপর ২০১৩ সালের ৭ সেপ্টেম্বর রাজশাহীতে পদ্মা বিপদসীমা অতিক্রম করেছিল। ওই বছর পদ্মার উচ্চতা দাঁড়িয়েছিল ১৮ দশমিক ৭০ মিটার। এরপর আর এই রেকর্ড ভাঙেনি।
পানি উন্নয়ন বোর্ডের গেজ রিডার এনামুল হক বলেন, মূলত বৃষ্টির কারণেই পদ্মায় পানি বাড়তে শুরু করেছে। সাধারণত অক্টোবর পর্যন্ত পানি বাড়তে থাকে। বিপদসীমা ধরা হয় ১৮ দশমিক ৫০ সেন্টিমিটার। গত বছর সেপ্টেম্বরে রাজশাহী পয়েন্টে পানির সর্বোচ্চ উচ্চতা ছিলো ১৮ দশমিক ১৯ সেন্টিমিটার। যা বিপদসীমার ৩১ সেন্টিমিটার নিচে ছিল। এখন পানি বাড়াকে স্বাভাবিক প্রবাহ হিসেবেই দেখছেন তিনি। তবে জুলাই মাসের শুরুর দিকে পানির প্রবাহ দেখে বোঝা যাবে রাজশাহীতে বন্যার মতো পরিস্থিতি তৈরি হবে কি না।

পানি উন্নয়ন বোর্ডের রাজশাহীর নির্বাহী প্রকৌশলী কোহিনুর আলম জানান, বৃষ্টির কারণেই মূলত নদীতে পানির পরিমাণ বাড়ছে। বর্তমানে যেভাবে পানি বাড়ছে এটা অস্বাভাবিক নয়। অতিমাত্রায় বৃষ্টিপাত হলে বন্যার সম্ভাবনা থাকে। সেক্ষেত্রে পানি উন্নয়ন বোর্ডের জরুরি কাজের পরিকল্পনা থাকে।

খবর কৃতজ্ঞতাঃ দৈনিক সানশাইন