রাজশাহীতে বিনম্র শ্রদ্ধায় পালন হচ্ছে অমর একুশে

রাজশাহী

ভাষা শহীদদের প্রতি বিনম্র শ্রদ্ধা জানানোর মধ্য দিয়ে রোববার রাজশাহীতে পালিত হচ্ছে অমর একুশে। ভাষা শহীদদের শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করতে গিয়ে সকলের কণ্ঠেই একই দাবি ‘অবশিষ্ট যুদ্ধাপরাধীদের দ্রুত ফাঁসি চাই’। এটি যেন আজ সকলের প্রাণের দাবিতে পরিণত হয়েছে।

এর আগে একুশের প্রথম প্রহরে রাজশাহীর বিভিন্ন শহীদ মিনারে সর্বশ্রেণীর মানুষের ঢল নামে। ভোর পেরিয়ে সকাল হতেই নানান রঙ আর সুগন্ধি ফুলে ভরে উঠে শহীদ বেদি। অমর একুশে স্মরণে সকালে মহানগরীতে শোক শোভাযাত্রা বের করে রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দ।

অমর একুশের কর্মসূচির মধ্যে রাত ১২টা ১ মিনিটে শহীদ মিনারে পুস্পস্তবক অর্পণ, সূর্যোদয়ের সাথে সাথে সকল সরকারি-বেসরকারি এবং আধা সরকারি প্রতিষ্ঠানে জাতীয় পতাকা অর্ধনমিত রাখা হয়। সকালে ছিল রাজশাহী কলেজে অবস্থিত শহীদ মিনার অভিমুখে প্রভাত ফেরি। মহানগরীর বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, সংগঠন, সংস্থার সদস্য ও সর্বস্তরের জনগণ প্রভাত ফেরিতে অংশ নেন।

এদিকে, যথাযোগ্য মর্যাদা ও ভাব গাম্ভীর্যের সঙ্গে ২১ ফেব্রুয়ারি মহান শহীদ দিবস ও আর্ন্তজাতিক মাতৃভাষা দিবস উদযাপন উপলক্ষে এবার ব্যাপক প্রস্তুতি গ্রহণ করেছে জেলা প্রশাসন।

ইসলামী ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে মহানগরীর হেতেম খাঁ মসজিদে ভাষা শহীদদের রুহের মাগফেরাত কামনা করে বাদ যোহর কোরআন খানি ও মিলাদ মাহফিল অনুষ্ঠিত হবে। এছাড়া ভাষা শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে অন্যান্য ধর্মীয় উপাসনালয়ে সুবিধামত সময়ে বিশেষ প্রার্থনা করা হবে।

মহানগরীর সড়ক দ্বীপসমূহে এবং অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ স্থানসমূহে বাংলা বর্ণমালা সম্বলিত ফেস্টুন দ্বারা সজ্জিত করা হয়েছে। সকাল থেকে রাজশাহী শিশু একাডেমিতে স্কুল, কলেজের ছাত্র-ছাত্রীদের চিত্রাঙ্কন, বাংলায় সুন্দর হাতের লেখা, ভাষার গান, দেশাত্মবোধক গান ও রচনা লিখন প্রতিযোগিতা চলছে।

শিল্পকলা একাডেমিতে বিকেলে রয়েছে, ভাষা সৈনিকদের সংবর্ধনা, আলোচনা সভা, পুরস্কার বিতরণী ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। এছাড়া সন্ধ্যায় গণযোগাযোগ অধিদফতরের উদ্যোগে মহানগরীর আলুপট্টি বঙ্গবন্ধু চত্বর, সাহেব বাজার ও লক্ষীপুরসহ বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ মোড়ে ভ্রাম্যমাণ চলচ্চিত্র প্রদর্শন করা হবে।

রাজশাহী মহানগর পুলিশ কমিশনার মো. শামসুদ্দিন জানিয়েছেন, দিবসটি উপলক্ষে কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা গড়ে তোলা হয়েছে। পুলিশ মোতায়েনের পাশাপাশি র‌্যাব সদস্যরাও টহল দিচ্ছে।

এছাড়া গোয়েন্দা সংস্থার সদস্যরা সাদা পোশাকে কর্তব্য পালন করছেন। প্রথম প্রহর থেকে রোববার সকাল পর্যন্ত নিরাপত্তার চাদরে ঢাকা ছিল রাজশাহী কলেজ শহীদ মিনার, ভুবন মোহন শহীদ মিনার ও কোর্ট শহীদ মিনার এলাকা। তবে কোনো অপ্রীতিকর ঘটনার খবর মেলেনি বলে জানান তিনি।

বাংলানিউজ-http://www.banglanews24.com/fullnews/bn/467667.html