রাজশাহীতে ভেজাল সেমাই ও ঘি তৈরি তিন কারখানাকে জরিমানা

রাজশাহী

রাজশাহীতে কাপড়ের রং ও নকল ঘি দিয়ে সেমাই তৈরি করা হচ্ছে। গতকাল শনিবার ভ্রাম্যমাণ আদালত সেমাই কারখানায় অভিযান চালাতে গিয়ে নকল ঘি তৈরির কারখানারও সন্ধান পান। এ ধরনের তিনটি প্রতিষ্ঠানকে আদালত মোট এক লাখ টাকা জরিমানা করেন।
প্রতিষ্ঠান তিনটি হলো পবা উপজেলার বায়ায় অবস্থিত দাদা ফুড প্রোডাক্টস, রাজশাহী নগরের সপুরা এলাকার পপুলার ফুড ইন্ডাস্ট্রিজ ও ঘোড়ামারা এলাকার অশোক ঘোষের ঘি কারখানা।

আদালত পরিচালনা করেন জেলা হাকিম রুমন দে। এ সময় উপস্থিত ছিলেন র্যা পিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়নের (র্যা ব-৫) সহকারী পুলিশ সুপার আবু বকর সিদ্দিক ও জাতীয় ভোক্তা-অধিকার সংস্করণ অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক অপূর্ব অধিকারী।

আদালত সূত্রে জানা গেছে, দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে দাদা ফুড প্রোডাক্টসে অভিযান চালানো হয়। কাপড়ের রং মিশিয়ে ওই সেমাই তৈরি করা হয়েছিল। এ ছাড়া কারখানার ব্যবস্থাপক ফারুক আহাম্মেদের কাছ থেকে আদালত জানতে পারেন, এ সেমাইয়ে নকল ঘিও ব্যবহার করা হয়। ঘোড়ামারার অশোক ঘোষের কাছ থেকে কম দামে কিনে আনা হয় ঘি। জাতীয় ভোক্তা-অধিকার সংরক্ষণ আইন ২০০৯ অনুযায়ী, দাদা ফুড প্রোডাক্টসকে ৪০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

পরে আদালত অশোক ঘোষের কারখানায় অভিযান চালিয়ে নকল ঘির নমুনা পান। অশোক ঘোষ স্বীকার করেন, তিনি বিভিন্ন বেকারিতে স্বল্প মূল্যে ঘি সরবরাহ করে থাকেন। আদালত অশোক ঘোষকে ৪০ হাজার টাকা জরিমানা করেন।
একই দিন আদালত নগরের সপুরা এলাকায় পপুলার ফুড ইন্ডাস্ট্রিজে অভিযান চালিয়ে অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে খাদ্যপণ্য উৎপাদন ও পণ্যের গায়ে উৎপাদন ও মেয়াদোত্তীর্ণের তারিখ না থাকায় ২০ হাজার টাকা জরিমানা করেন।

খবরঃ প্রথম-আলো