রাজশাহীতে যুবলীগ নেতার আত্মহত্যা

রাজশাহী

রাজশাহী মহানগরীর রাজারহাতা এলাকায় স্ত্রীর ওপর অভিমান করে রবিউল ইসলাম আপেল (৩৮) নামে এক যুবলীগ নেতা গলায় ফাঁস নিয়ে আত্মহত্যা করেছেন।

শুক্রবার (৬ মে) সকাল সাড়ে ৮টার দিকে নিজ ঘরের সিলিংয়ে দড়ি দিয়ে গলায় ফাঁস নেন তিনি। খবর পেয়ে বেলা সাড়ে ১১টার দিকে বোয়ালিয়া থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে যায়। রবিউল ইসলাম আপেল মহানগরীর ১১ নম্বর ওয়ার্ড যুবলীগের সভাপতি ছিলেন।

বোয়ালিয়া থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মতিউর রহমান জানান, খবর পেয়ে পুলিশ তার মরদেহ উদ্ধারের জন্য ঘটনাস্থলে যায়। কিন্তু পরিবারের সদস্যদের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে ময়নাতদন্ত ছাড়াই মরদেহ দাফনের অনুমতি দেওয়া হয়।

পরিবারের সদস্যদের বরাত দিয়ে তিনি জানান, কয়েকদিন আগে রবিউলের স্ত্রী আরিফা বেগম স্বামীর ওপর অভিমান করে বাবার বাড়িতে (মহানগরীর সবজিপাড়া) চলে যান। এরপর রবিউল স্ত্রীকে বাড়িতে ফিরিয়ে আনতে নানাভাবে চেষ্টা চালান। শুক্রবার ভোরেও স্ত্রীকে ফিরিয়ে আনতে শ্বশুরবাড়ি যান রবিউল। কিন্তু স্ত্রী ফিরে না আসায় অভিমানে বাড়ি গিয়ে ঘরের সিলিংয়ের সঙ্গে গলায় ফাঁস নিয়ে আত্মহত্যা করেন তিনি। তার মেয়ে অন্তরা বাবাকে ঘরের সিলিংয়ের সঙ্গে ঝুলতে দেখে চিৎকার দিয়ে সবাইকে ডাকেন। এ সময় বাড়ির লোকজন গিয়ে ঘরের দরজা ভেঙে রবিউলকে উদ্ধারের চেষ্টা করেন। কিন্তু ততক্ষণে  মারা যান তিনি।

এ ব্যাপারে থানায় একটি অপমৃত্যুর (ইউডি) মামলা হবে বলে জানান এসআই রবিউল।

খবরঃ বাংলানিউজ