রাজশাহীতে সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৪১.২ ডিগ্রি

রাজশাহী

সূর্যের আগুনে পুড়ছে রাজশাহী। সূর্যোদয়ের পর থেকে সূর্যাস্ত পর্যন্ত একই মাত্রায় তাপ নামছে। প্রখর রোদে মাটি ফেটে চৌঁচির হচ্ছে।

ভবনের ট্যাপ দিয়ে বের হচ্ছে গরম পানি। তেঁতে উঠেছে আসবাবপত্রও। দুপুর গড়াতেই খাঁ খাঁ করছে পথঘাট। ঘরে বাইরে কোথাও স্বস্তি নেই। প্রকৃতির তপ্ত শ্বাস-প্রশ্বাসে দূর্বিষহ হয়ে উঠেছে জনজীবন। মানুষের পাশাপাশি পশু-পাখিরাও হাঁসফাঁস করছে। হাফ ছেড়ে বাঁচতে বৃষ্টির জন্য হাহাকার পড়ে গেছে।

রাজশাহী অঞ্চলের ওপর দিয়ে গত এক সপ্তাহের বেশি সময় ধরে মাঝারি থেকে তীব্র তাপপ্রবাহ বয়ে যাচ্ছে। শুক্রবার (২৯ এপ্রিল) রাজশাহীতে চলতি মৌসুমের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে ৪১ দশমিক ২ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

এর আগে গত ২৩ এবং ২৮ এপ্রিল ছিল ৪০ দশমিক ২ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

এছাড়া এক সপ্তাহ ধরে তাপমাত্রা ৩৮ থেকে ৪০ ডিগ্রির মধ্যে ওঠানামা করছিল।
এর আগে ২০১৩ সালের ১০ এপ্রিল সর্বোচ্চ তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছিল ৪১ দশমিক ২ ডিগ্রি সেলসিয়াস। ফলে অবর্ণনীয় গরমে জনজীবন ওষ্ঠাগত হয়ে পড়েছে।

বিশেষ করে শিশু ও বৃদ্ধরা প্রচণ্ড গরমে কাহিল হয়ে পড়েছে। অব্যাহত তাপমাত্রায় ঘরে ঘরে ডায়রিয়া, জ্বর, সর্দি-কাশিসহ বিভিন্ন উপসর্গে আক্রান্তের সংখ্যা ক্রমেই বাড়ছে। এসব রোগে বৃদ্ধ-বৃদ্ধা ও শিশুরাই বেশি আক্রান্ত হচ্ছে। পাশাপাশি উচ্চ রক্তচাপে আক্রান্তদের দুর্ভোগ বেড়েছে এ তীব্র গরমে।

আগুনমুখো আবহাওয়ার কারণে কর্মজীবী মানুষ ছাড়া কেউই খুব জরুরি কাজ না থাকলে বাড়ির বাইরে বের হচ্ছেন না। একটু সুশীতল ছায়ার জন্য মহানগরবাসী যেন উন্মুখ হয়ে উঠেছেন। কিন্তু কোথাও প্রশান্তি নেই। এবার চলতি মৌসুমের তাপ প্রবাহে স্বাভাবিক জীবনযাত্রা ব্যহত হচ্ছে।

রাজশাহী আবহাওয়া অধিদপ্তরের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আশরাফুল আলম জানান, শুক্রবার দুপুরে মহানগরীতে সর্বোচ্চ তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয় ৪১ দশমিক ২ ডিগ্রি সেলসিয়াস। আজ-কালের মধ্যে ভারী বৃষ্টিপাত না হলে এ পরিস্থিতির উন্নতি হওয়ার কোনো সম্ভাবনা নেই বলে জানান তিনি।

এক প্রশ্নের জবাবে আশরাফুল আলম বলেন, রাজশাহীর ওপর দিয়ে বর্তমানে মাঝারি থেকে তীব্র ধরনের তাপদাহ বয়ে যাচ্ছে যা, অব্যাহত থাকতে পারে। এছাড়া চলতি মাসে দেশের উত্তর ও মধ্যাঞ্চলে ১-২টি তীব্র তাপপ্রবাহ (৪০ ডিগ্রি সেলসিয়াসের বেশি) বয়ে যেতে পারে।

ঢাকা আবহাওয়া অধিদফতরের বরাত দিয়ে তিনি বলেন, চলতি মাসের দীর্ঘমেয়াদী পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, আগামী মাসে বঙ্গোপসাগরে দু’একটি নিম্নচাপ সৃষ্টি হতে পারে। এর মধ্যে একটি ঘূর্ণিঝড়েও রূপ নিতে পারে। এর প্রভাবে দেশে বৃষ্টিপাত হলে তাপমাত্রা কিছুটা কমতে পারে।

খবরঃ বাংলানিউজ

1 thought on “রাজশাহীতে সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৪১.২ ডিগ্রি

Comments are closed.