রাজশাহীতে সীমিত আসনের বিপরীতে ১৫ হাজার শিক্ষার্থী

রাজশাহী

রাজশাহী মহানগরীর নামীদামি চার সরকারি কলেজে জিপিএ-৫ প্রাপ্তদের অনেকেই ভর্তির সুযোগ পাবে না এবার। দেশের আটটি শিক্ষাবোর্ডের মধ্যে পাসের হারে সেরা হয়েছে রাজশাহী। তাই খুশির রেশ কাটতে না কাটতেই শিক্ষার্থীদের মনে চিন্তার রেখা ফুটে উঠেছে ভর্তি নিয়ে।

মহানগরীর সরকারি কলেজগুলো ছাড়া তেমন মানসম্পন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান না থাকায় দুশ্চিন্তায় পড়েছে শিক্ষার্থীরা। কারণ আসন কম থাকায় সর্বোচ্চ ফলাফল জিপিএ-৫ পেয়েও অনেকেই নিজেদের পছন্দের কলেজে ভর্তি হতে পারবেন না। আর জিপিএ-৫ এর নিচে প্রাপ্ত শিক্ষার্থীদের অনেককেই ভর্তি হতে হবে মানহীন কলেজে। আগামী ৬ জুন থেকে ১৮ জুন পর্যন্ত একাদশ শ্রেণির ভর্তি ফরম পুরণ ও জমা দেওয়া যাবে অনলাইনে। বিলম্ব ফিসহ ভর্তির শেষ তারিখ ২৬ জুন। ক্লাস শুরু হবে ১ জুলাই থেকে।

রাজশাহী মহানগরের নামী চারটি কলেজ হচ্ছে- রাজশাহী কলেজ, নিউ গভর্মেন্ট সরকারি ডিগ্রি কলেজ, রাজশাহী সিটি কলেজ ও রাজশাহী মহিলা কলেজ। এছাড়া সরকারি কলেজিয়েট স্কুল অ্যান্ড কলেজও যুক্ত হয়েছে এবার। সরকারি কলেজগুলোতে ভর্তি হওয়ার জন্য রাজশাহীসহ আশপাশের ৫ থেকে ৬টি জেলার শিক্ষার্থীরা প্রতিবছর ভর্তির মৌসুমে হুমরি খেয়ে পড়ে। ব্যতিক্রম ঘটবে না এবারও।

এ পাঁচটি কলেজে ৪ হাজার ৬শ’ ৫০টি ‍আসন থাকলেও এর বিপরীতে ভর্তিযুদ্ধ করবে ১৫ হাজারেও বেশি শিক্ষার্থী।
r1bg_768336082

ভালো ফল করার পর ভালো কলেজে ভর্তির প্রতিযোগিতার মাত্রা দ্বিগুণ বেড়ে গেছে শিক্ষার্থীদের মধ্যে। এর মধ্যে এইচএসসিতে এ বছর সারাদেশে সরকারি ও বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে এসএমএসের পাশাপাশি অনলাইনে শিক্ষার্থী ভর্তি প্রক্রিয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে আন্তঃশিক্ষা বোর্ড সমন্বয় কমিটি।

ফল প্রকাশের দিন এ কথা জানানো হয়েছে। সাধারণত: উচ্চ মাধ্যমিকের ভর্তি নীতিমালা অনুযায়ী, একাদশ শ্রেণিতে মাধ্যমিক পরীক্ষার ফলাফলের ভিত্তিতে শিক্ষার্থী ভর্তি করা হয়। ৩০০ জনের বেশি শিক্ষার্থী ভর্তির অনুমতি আছে, এমন প্রতিষ্ঠানে অনলাইনে ভর্তি কার্যক্রম সম্পন্ন করার জন্য বোর্ডগুলোকে নির্দেশনা দেওয়া আছে। তবে ৫০০ জনের বেশি হলে অবশ্যই অনলাইনে ভর্তি করার নির্দেশনাও রয়েছে। সেক্ষেত্রে রাজশাহীর বাইরের শিক্ষার্থীরা শহরে না এসেও অনলাইনে ভর্তি সুযোগ পাবে। ফলে মহানগরের শিক্ষার্থীদের এবার ভালো কলেজে ভর্তির জন্য আরও বেগ পেতে হবে।

রাজশাহী শিক্ষাবোর্ডের কলেজ শাখা সূত্রে জানা গেছে, এ বছর মোট পাঁচটি সরকারি কলেজে একাদশ শ্রেণিতে ভর্তির জন্য আসন সংখ্যা রয়েছে ৪ হাজার ৬৫০টি। এর মধ্যে রাজশাহী কলেজে রয়েছে ৬০০টি আসন। বিজ্ঞান শাখায় ৩০০টি, ব্যবসায়ী শিক্ষা শাখায় ১৫০টি ও মানবিক শাখায় ১৫০টি আসন রয়েছে। রাজশাহী নিউ গভ. ডিগ্রি কলেজের ১ হাজার ২০০টি আসনের মধ্যে বিজ্ঞান শাখায় ৬০০টি, ব্যবসায়ী শিক্ষা শাখায় ৩০০টি ও মানবিক শাখায় ৩০০টি আসন রয়েছে। সরকাররি সিটি কলেজের ১ হাজার ২০০টি আসনের মধ্যে বিজ্ঞান শাখায় ৬০০টি, ব্যবসায়ী শিক্ষা শাখায় ৩০০টি ও মানবিক শাখায় ৩০০টি আসন রয়েছে। সরকারি মহিলা কলেজের ১ হাজার ২০০টি আসনের মধ্যে বিজ্ঞান শাখায় ৪৫০টি, ব্যবসায় শিক্ষা শাখায়ী ৩০০টি ও মানবিক শাখায় ৪৫০টি আসন রয়েছে।

এদিকে, রাজশাহী শিক্ষাবোর্ড থেকে এবারের এসএসসি পরীক্ষায় জিপিএ-৫ পেয়েছে ১৫ হাজার ৮৭৩ জন শিক্ষার্থী। সুতরাং মোট ৪ হাজার ৬৫০ আসনের বিপরীতে ভর্তি যুদ্ধে অবতীর্ণ হবে ১৫ হাজার ৮৭৩ জন শিক্ষার্থী। ফলে একটি আসনের জন্য গড়ে ৩ জন করে শিক্ষার্থী লড়াই করবে।

রাজশাহী শিক্ষাবোর্ডের কলেজ পরিদর্শক আনোয়ারুল হক প্রামানিক জানান, আগামী ৬ জুন থেকে উচ্চ মাধ্যমিক শ্রেণিতে শিক্ষার্থী ভর্তির জন্য রাজশাহী শিক্ষাবোর্ডের অন লাইন ওয়েব সাইট (www.rajshahieducationboard.gov.bd ) খুলে দেওয়া হবে। ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীরা ১২ জুন পর্যন্ত অন লাইনের মাধ্যমে এ ফরম পুরণ করতে পারবেন। এ উপলক্ষে যথাযথ প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে শিক্ষাবোর্ড ও সংশিষ্ট কলেজগুলো। তবে ফলাফল পুন:নিরীক্ষণের জন্য সময় বাড়ানো হয়েছে। আবেদনকৃত যে সকল শিক্ষার্থীর ফলাফল পরিবর্তন হবে তাদের জন্য আবেদনের শেষ তারিখ ১৮ জুন পর্যন্ত বর্ধিত করা হয়েছে। ২২ জুন শিক্ষাবোর্ড কর্তৃক ভর্তির জন্য মনোনীত শিক্ষার্থীদের তালিকা প্রকাশ করা হবে এবং ৩০ জুন শিক্ষার্থী ভর্তি করা হবে।

রাজশাহী শিক্ষাবোর্ডের কলেজ পরিদর্শক আনোয়ারুল হক প্রামাণিক আরও জানান, ফলাফলের ওপর ভিত্তি করে এবারও কলেজগুলোতে ভর্তি করা হবে। তবে এবার অনলাইনে আবেদনকারীরা সর্বোচ্চ সুযোগ পাবেন। তারা পছন্দের পাঁচটি কলেজের জন্য আবেদন করতে পারবেন মাত্র ১৫০ টাকায়। আর এসএমএস এর মাধ্যমে পছন্দের প্রতিটি কলেজে ভর্তির জন্য ১২০ টাকা হারে ফি দিতে হবে।

তিনি জানান, এবার একসঙ্গে একজন শিক্ষার্থী ৫টি কলেজে ভর্তির জন্য আবেদন করতে পারবে। ভর্তির ক্ষেত্রে ফলাফল একই হলে পরীক্ষায় প্রাপ্ত নম্বরের ওপর ভিত্তি করে আবেদনকারীদের মধ্য সর্বোচ্চ নম্বর প্রাপ্ত শিক্ষার্থী ভর্তির সুযোগ পাবে। পরীক্ষার এই নম্বরপত্র রয়েছে শিক্ষা বোর্ডের কাছে।

প্রসঙ্গত, এবারের এসএসসি পরীক্ষায় রাজশাহী শিক্ষাবোর্ডের পাসের হার ৯৪.৯৭ শতাংশ। জিপিএ-৫ পেয়েছে ১৫ হাজার ৮৭৩ জন। তাই পাসের হারে এবার দেশসেরা হয়েছে রাজশাহী। বোর্ডে এ বছর পাসের হার ও জিপিএ-৫ প্রাপ্তির দিক থেকে মেয়েদের চেয়ে ছেলেরা এগিয়ে।

সূত্র:বাংলানিউজ