রাজশাহীতে স্ত্রীর মামলায় পুলিশ কনস্টেবল কারাগারে

রাজশাহী

স্ত্রীর দায়ের করা যৌতুক মামলায় আহসান হাবিব (২৩) নামের এক পুলিশ কনস্টেবলকে কারাগারে পাঠিয়েছেন আদালত।

বুধবার (২১ ডিসেম্বর) দুপুরে রাজশাহীর সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আমলী আদালতের (১) এর বিচারক শাহনাজ পারভীন এ আদেশ দেন। পরে আদালতের নির্দেশে বিকেলে তাকে রাজশাহী কেন্দ্রীয় কারাগারে পাঠানো হয়।

এর আগে আদালতে হাজির হয়ে জামিনের আবেদন করেন পুলিশ কনস্টেবল আহসান হাবিব। পরে শুনানি শেষে আদালতের বিচারক জামিন না মঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

পুলিশ কনস্টেবল আহসান হাবিব (কন: নং-১৯৩) বর্তমানে রাজশাহী রেঞ্জ রিজার্ভ ফোর্স (আরআরএফ) পুলিশে কর্মরত। তার বাড়ি রাজশাহীর তানোর উপজেলার দুবাইল গ্রামে।

মামলা সূত্রে জানা জানা যায়, গত বছরের ৭ জুন আহসান হাবিব রাজশাহীর মোহনপুর উপজেলার কালিগ্রামের রফিকুল ইসলামের মেয়ে রাজিফা খাতুনকে (১৯) বিয়ে করেন।
বিয়ের পর তিনি শ্বশুর বাড়িতেই থাকতেন। এরই মধ্যে বিয়ের কথা গোপন করে তিনি পুলিশ বাহিনীতে যোগ দেন। তারপর থেকে শ্বশুরের কাছ থেকে যৌতুকের টাকা নিয়ে দেওয়ার জন্য আহসান তার স্ত্রীকে চাপ দেন। কিন্তু রাফিজার বাবা যৌতুক দিতে না পারায় আহসান বিয়ের কথা অস্বীকার করেন।

এই ঘটনায় সম্প্রতি রাফিজা রাজশাহীর আদালতে তার নামে প্রতারণা ও যৌতুকের আলাদা দু’টি মামলা করেন। যৌতুকের মামলায় আহসান ও তার বাবা আশরাফুলকে আসামি করা হয়।

বাদীপক্ষের আইনজীবী রইসুল ইসলাম জানান জানান, মামলায় আদালতে হাজিরা দিতে আসেন আহসান। এ সময় তার পক্ষ থেকে জামিনের আবেদন করা হয়। কিন্তু আদালত জামিন না মঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন। পরে তাকে কারাগারে পাঠানো হয়।

খবরঃ বাংলানিউজ