রাজশাহীর জীর্ণ রাস্তায় শিশু শিক্ষার্থীরা

রাজশাহী

রাজশাহী নগরীর মোহাম্মদপুর এলাকার টিকাপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের তৃতীয় শ্রেণীর শিক্ষার্থী রোজিনা আক্তার। বাড়ি থেকে একাই স্কুলে যাওয়া-আসা করে। এবার বর্ষায় বেশ কিছুদিন স্কুলের হাজিরা খাতায় তার নামের পাশে লাল কালি পড়েছে। কারণ হিসেবে সে জানায়, বৃষ্টি হলেই তার স্কুল সংলগ্ন ভাঙা-চোরা রাস্তায় ড্রেনের পচা পানি উঠে তা ডুবে যায়। সে ওই পানি ডিঙ্গিয়ে স্কুলে যেতে ভয় পেতো। শুরুর দিকে কদিন বাধ্য হয়েই ড্রেনের সেই পচা পানি মাড়িয়ে স্কুলে যাওয়াতে তার সর্দি-জ¦র দেখা দেয়। একরণে বর্ষার এই দিনগুলোতে পরিবারো বিষয়টি গুরুত্বের সাথে নিয়ে তাকে স্কুলে যেতে নিরুৎসাহিতই করেছে। সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়টিতে রোজিনার মতো প্রায় তিনশ শিশু শিক্ষার্থী রয়েছে। তাদেরকেও একই বিড়ম্বনা নিয়ে বাধ্য হয়েই স্কুলে যাতায়ত করতে হচ্ছে।

এলাকাটি ২৭ নম্বর ওয়ার্ডের মধ্যে পড়ে। মোহাম্মদপুর টিকাপাড়া এলাকার স্থায়ী বাসিন্দা আলমগীর পারভেজ তাদের নিত্যদিনের দুর্দশার চিত্র তুলে ধরে জানান, দীর্ঘ প্রায় ১০ বছর রাস্তাটিতে কোন সংস্কারের কাজ করা হয়নি। একই সাথে এই রাস্তা সংলগ্ন যে ড্রেনটি আছে; তাও জরাজীর্ণ। ফলে এলাকাবাসীসহ রাস্তাটি ব্যবহারকারীদের দুর্ভোগ চরমে পৌছেছে। ওয়ার্ডটির কাউন্সিলর ভোটের সময় ঠিকই ভোট নিয়ে গেছেন; তবে এলাকাবাসীর পরিত্রাণ মেলেনি দুর্ভোগ থেকে।

সরেজমিনে এই রাস্তাটিতে গিয়ে দেখা যায়, পিচবিহীন ইটের খোয়া বিছান রাস্তার বেহাল দশা। সেই খোয়া বিভিন্ন জায়গায় উঠে গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। সেখানে বৃষ্টির পানি জমে রয়েছে। বৃষ্টিতে পায়ে হেটে পথ চলা কষ্টকর। আবার কোথাও কোথাও পুরো রাস্তাই ডোবা। ড্রেনের পচা পানিতে রাস্তাটি ডুবে রয়েছে। এলাকাবাসীর দাবি দ্রুত সময়ের মধ্যে এই রাস্তাটি সংস্কার করা হোক।

খবর কৃতজ্ঞতাঃ দৈনিক সানশাইন