রাজশাহীর শাহ মখদুম বিমানবন্দরে নিরাপত্তা জোরদার

রাজশাহী

যাত্রীবেশে বিমানে উঠে উড়োজাহাজ ছিনতাইয়ের চেষ্টার পর রাজশাহীর হযরত শাহ মখদুম (রহ.) বিমানবন্দরে নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করা হয়েছে। বাড়ানো হয়েছে নিরাপত্তাকর্মীর সংখ্যাও। বিমানবন্দরে তারাও সতর্ক অবস্থায় আছেন।

সোমবার (২৫ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে হযরত শাহ মখদুম (রহ.) বিমানবন্দরের ব্যবস্থাপক সেতাফুর রহমান এ তথ্য জানান।

তিনি জানান, রোববার (২৪ ফেব্রুয়ারি) ঢাকা থেকে দুবাইগামী বিমান ছিনতাইয়ের চেষ্টার পর বাংলাদেশ সিভিল এভিয়েশন রাজশাহী বিমানবন্দরেও বিশেষ সতর্কতা অবলম্বনের নির্দেশ দিয়েছে। তাই সোমবার সকাল থেকেই নিরাপত্তাকর্মীর সংখ্যা বাড়ানো হয়েছে। এছাড়া বিমানবন্দরে যাত্রীদের আরও ভালভাবে তল্লাশি করা হচ্ছে।

সেতাফুর রহমান বলেন, আমার মনে হয়, ডোমেস্টিক বিমানবন্দরগুলোর মধ্যে রাজশাহীতেই নিরাপত্তা ব্যবস্থা সবচেয়ে বেশি। তারপরেও সকালে পুলিশ, জেলা প্রশাসন এবং বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থার ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা বিমানবন্দরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা খতিয়ে দেখেছেন। কোথাও কোনো নিরাপত্তা ব্যবস্থার ঘাটতি থাকলে আমরা সেগুলো পূরণ করার উপায় নির্ধারণ করেছি।

তিনি জানান, রাজশাহী বিমানবন্দরে সিভিল এভিয়েশনের নিজস্ব নিরাপত্তাকর্মী ছাড়াও পুলিশ, আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়ন (এপিবিএন) ও আনসার বাহিনীর সদস্যরা কাজ করেন। হঠাৎ করে অন্য বিভাগের নিরাপত্তাকর্মীর সংখ্যা বাড়াতে না পাওয়ার কারণে পুলিশের সংখ্যা বাড়ানো হয়েছে। তবে যত দ্রুত সম্ভব অন্য বিভাগের নিরাপত্তাকর্মীর সংখ্যাও বাড়ানো হবে বলেও জানান ব্যবস্থাপক।

এদিকে রাজশাহীর শাহ মখদুম (রহ.) বিমানবন্দরে রোববার, মঙ্গলবার, বৃহস্পতিবার ও শুক্রবার সপ্তাহে এ চারদিন ঢাকা-রাজশাহী-ঢাকা ফ্লাইট পরিচালনা করছে বাংলাদেশ বিমান।

এছাড়া সপ্তাহের শনিবার, সোমবার ও বুধবার একই রুটে ফ্লাইট পরিচালনা করছে বেসরকারি বিমান সংস্থা ইউএস বাংলা এয়ারলাইনস। বিমানবন্দরে এখন প্রতিদিন অভ্যন্তরীণ রুটের একেকটি ফ্লাইটে সাধারণত ১২০ থেকে ১৪০ জন যাত্রী নিয়ে উড়োজাহাজগুলো ওঠানামা করে।

খবর কৃতজ্ঞতাঃ বাংলানিউজ২৪