রাজশাহী কিংসকে ঘিরে প্রত্যশা

খেলাধুলা রাজশাহী

বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগে (বিপিএল) গতবছর প্রথমবারের মতো অংশ নেয় রাজশাহী কিংস। সেবার রানার্স আপ হয়ে নিজেদের শক্তির জানান দেয় পদ্মাপাড়ের এই দলটি। তবে এবার বিপিএলের জন্য আরও শক্তিশালী হিসেবে গড়ে তোলা হয়েছে রাজশাহী কিংসকে।

তাই বিপিএলের অন্যতম শিরোপার দাবীদার এই দলের সামনে এবার প্রত্যাশার পাহাড় দাঁড় করিয়েছেন রাজশাহীবাসী। রাজশাহীর ক্রীড়াপ্রেমিরা বলছেন, খেলোয়াড় থেকে কোচ- সবখানেই এবার ষোলআনা পূর্ণতা এসেছে রাজশাহী কিংসে। তাই দলের কাছে প্রত্যাশাও বেড়ে গেছে বহুগুণ।

বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের সাবেক অধিনায়ক খালেদ মাসুদ পাইলট বলেন, অধিনায়ক ড্যারেন স্যামির জন্যই এগিয়ে থাকবে রাজশাহী কিংস। খেলোয়াড় হিসেবে যেমনই হোক, অধিনায়ক হিসেবে ড্যারেন স্যামির অসাধারণ গুণ রয়েছে। দলবদ্ধভাবে খেলে নেপুণ্য দেখানোর ক্ষমতা রয়েছে তার। তাছাড়া গত বছর রাজশাহী কিংসের অধিনায়কত্ব করার অভিজ্ঞতাও রয়েছে তার।

পাইলট বলেন, ড্যারেন স্যামি অনেক বন্ধুসুলভ একজন খেলোয়াড়। দলের সব খেলোয়াড়কে নেতৃত্ব দিয়ে ম্যাচ জিততে তিনি খুব পটু। গতবার মাঝারি শক্তির একটি দল নিয়েই তিনি দলকে রানার্সআপ করেছিলেন। এবারের দল আরও শক্তিশালী। বিশেষ করে বিপিএলের প্রতিটি আসরে খেলার অভিজ্ঞতা রয়েছে মুশফিকুর রহিমের। দীর্ঘ সময় ব্যাটিং করার মতো ক্ষমতাও তার রয়েছে। তাই দলের কাছে এবার প্রত্যাশাটাও বেশি।

পাইলট মনে করেন, প্রথম দিকের কয়েকটি ম্যাচ জিততে পারলে রাজশাহী কিংস পরের ম্যাচগুলোতেও অনেক ভালো করবে। তখন রাজশাহী কিংস চ্যাম্পিয়ন হলেও অবাক হওয়ার কিছু থাকবে না। তবে চ্যাম্পিয়ন হতে হলে বিদেশী খেলোয়াড়দেরই ভালো খেলতে হবে। আর তাদের সহযোগিতা করতে হবে দেশি খেলোয়াড়দের। কাটিং মাস্টার মুস্তাফিজুর রহমান মাঠে ফিরতে পারলে রাজশাহী কিংসের লড়াই অনেক সহজ হবে বলেও মনে করেন বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের সাবেক এই অধিনায়ক।

এবার রাজশাহী কিংসের প্রধান কোচ হিসেবে আছেন বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের সাবেক কোচ সরোয়ার ইমরান। বিপিএলের প্রথম আসরে তার কোচিংয়ে মুগ্ধ ছিল অনেক ক্রিকেট বোদ্ধা। ক্রিকেটারদের ট্যালেন্ট কাজে লাগিয়ে তাদের টেকনিক্যাল দিকগুলো বেশ ভালোই কাজে লাগাতে পটু দেশি এই কোচ। তার দীক্ষা নিয়েই বিপিএলের দ্বিতীয় ম্যাচে শনিবার সন্ধ্যায় সিলেটে রংপুর রাইডার্সের বিপক্ষে মাঠে নামবে রাজশাহী কিংস।

দলের কাছে প্রত্যাশা কেমন, জানতে চাইলে সারোয়ার ইমরান বলেন, রাজশাহী কিংসের সবাই সেরা খেলোয়াড়। তাই প্রত্যাশাটা এবার আগের চেয়েও বেশি। শুক্রবার বিকেলে ক্রিকেটাররা সিলেট স্টেডিয়ামে নিজেদের ঝালিয়ে নিয়েছেন। তারা এখন মাঠে নামতে প্রস্তুত। তাদের কাছ থেকে অবশ্যই ভালো কিছুই আশা করা যায়।

রাজশাহী কিংসের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা তাহমিদ আজিজুল হক বলেন, টাইগার দলের ব্যাটিং স্তম্ভ মুশফিকুর রহিম, কাটার মাস্টার মুস্তাফিজুর রহমান, মেহেদি হাসান মিরাজ ও ফরহাদ রেজার কাছে তার অনেক প্রত্যাশা। ইনজুরির কারণে প্রথম দিকের ম্যাচগুলোতে মুস্তাফিজকে না পেলেও কেরসিক উইলিয়ামস এবং মোহাম্মদ সামি দলে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবেন। ফলে দলে কোনো সমস্যাই দেখছেন না তাহমিদ আজিজুল হক।

রাজশাহী কিংসে এবার বিদেশি খেলোয়াড়দের মধ্যে আরও আছেন সামিত প্যাটেল, লুক রাইট, জেমস ফ্যাঙ্কলিন, ম্যালকম ওয়ালার ও লেন্ডল সিমন্স। আছেন উসামা মীর, নিহাদুজ্জামান, হোসেন আলী, নাঈম ইসলাম জুনিয়র ও কাজী অনিকের মতো তারকারাও। আর অনূর্ধ্ব-১৯ দলের হয়ে ২০১৬ বিশ্বকাপে দুর্দান্ত পারফর্ম করা জাকির হাসান রয়েছেন উইকেটরক্ষক হিসেবে।

তাদের কথা উল্লেখ করে দলের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা বলেন, আমাদের লড়াই করার অভিজ্ঞতা রয়েছে। তাই এবারের টার্গেট চ্যাম্পিয়ন হওয়া। দলের অভিজ্ঞ এবং তরুণ খেলোয়াড়দের সমন্বয়ে চ্যাম্পিয়ন হওয়াটা আমাদের জন্য খুব বেশি কঠিন বলেও মনে করি না। তবে টি-টোয়েন্টিতে বড়-ছোট দলের পার্থক্য কম। আমাদের খেলোয়াড়রা নিজেদের সেরা খেলাটা খেলবেন বলেই প্রত্যাশা রাখি।

রাজশাহী কিংসের মালিকানায় রয়েছে রেনেসাঁ গ্রুপ, রানার গ্রুপ, ই-জেনারেশন ও ইন্টার কনজ্যুমার প্রোডাক্ট (ইজিপি)। গতবার ১৫ ম্যাচ খেলে রাজশাহীর রাজারা জয় তুলে নিয়েছিল ৮ ম্যাচে। ফাইনালে ঢাকা ডায়নামাইটসের কাছে হেরে শিরোপা হাতছাড়া হয় তাদের। এতে আক্ষেপ করতে হয় রাজশাহীবাসীকে।

তাই এবার চ্যাম্পিয়ন হয়ে তারা সেই আক্ষেপ মেটাতে চান। এ জন্য এবার বিপিএলকে ঘিরে রাজশাহীতে শুরু হয়ে গেছে ক্রিকেট উৎসব। রাজশাহী কিংসের খেলা দেখাতে বিভিন্ন ক্লাব ও ক্রীড়া সংগঠনগুলো নগরীর বিভিন্ন মোড়ে মোড়ে বড়পর্দায় খেলা দেখানোর ব্যবস্থা করেছে। প্রথম ম্যাচে জয় দিয়ে রাজশাহীর রাজারা তাদের শুভসূচনা করবেন বলে প্রত্যাশা তাদের।

খবরঃ ডেইলি সানশাইন

4 thoughts on “রাজশাহী কিংসকে ঘিরে প্রত্যশা

Comments are closed.