রাজশাহী পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট-এর আবাসিক শিক্ষাথীদের দুর্ভোগ চরমে

ক্যাম্পাসের খবর রাজশাহী রাজশাহী পলিটেকনিক ইন্সটিটিউট

রাজশাহী পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট-এর তিনটি হোষ্টেল দীর্ঘ প্রায় ৬ বছর বন্ধ রয়েছে। এর ফলে দূর-দূরান্ত থেকে আসা এই শিৰা প্রতিষ্ঠানের আবাসিক শিৰার্থীদের দূর্ভোগ চরমে উঠেছে। একদিকে তারা যেমন নিজ ক্যাম্পাসে অবস’ান করা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে, অপরদিকে তেমনই মোটা অংকের অর্থ ও সময় দুই-ই অপচয় করতে হচ্ছে। সর্বোপরি নিজ ক্যাম্পাসে তাদের নিরাপদ অবস’ানও নিশ্চিত হচ্ছে না।

শিৰানগরী রাজশাহীতে কারিগরি শিৰার প্রসারের জন্য ১৯৬৩ সালে রাজশাহী পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট প্রতিষ্ঠা লাভ করে। বর্তমানে ৮টি  টেকনোলজীতে প্রায় ৩ হাজারেরও বেশি শিৰার্থী রয়েছে অর্ধ-শতাব্দীর বেশি সময়েরও আগে প্রতিষ্ঠিত এই শিৰা প্রতিষ্ঠানটিতে।
বর্তমানে রাজশাহী পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট-এ আবাসিক শিৰার্থীদের জন্য তিনটি ছাত্রাবাস রয়েছে। এর মধ্যে ১৯৬৩ সালে প্রতিষ্ঠিত শহীদ মোনায়েম ছাত্রাবাস ও ১৯৮৮ সালে প্রতিষ্ঠিত শাহ নেয়ামতউলৱাহ ছাত্রাবাস দুইটি ছাত্রদের জন্য, আর অপরটি ছাত্রীদের জন্য। এই তিনটি ছাত্রাবাসে প্রায় পৌনে তিনশো’ আবাসিক শিৰার্থী অবস’ান করতে পারে।

কিন’ দীর্ঘদিন যাবত হোষ্টেল তিনটি বন্ধ থাকায় দূর-দূরান্তের আবাসিক শিৰার্থীদেরকে চরম দূর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে।
এ প্রসঙ্গে ইনস্টিটিউট-এর কয়েকজন শিৰার্থী অভিযোগ করে বলেন, তাদেরকে ক্যাম্পাসের বাইরে মেসে থেকে সেখান থেকে ক্লাশ করতে হচ্ছে। এতে তাদের পড়াশুনার খরচ বেড়ে যাচ্ছে এবং সময়ও অপচয় হচ্ছে। অনেকে মেস থেকে ক্যাম্পাসে এসে সকালের প্রথমদিকের ক্লাশ ধরতে পারে না।

ইনস্টিটিউট সূত্রে জানা যায়, ২০১০ সালে ছাত্রলীগের হামলায় ছাত্রমৈত্রী নেতা রেজোওয়ানুল ইসলাম সানি নিহত হয়। এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে কলেজ কর্তৃপৰ ক্যাম্পাস বন্ধ ঘোষণা করেন। সেই সঙ্গে শিৰার্থীদের তাৎৰনিক হোষ্টেল ত্যাগের নির্দেশও দেয়া হয়। এর কিছুদিন পর ক্যাম্পাসে স্বাভাবিক পরিসি’তি ফিরে আসলেও উক্ত আবাসিক ছাত্রাবাসের তালা আজও খোলেনি।

এদিকে, সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে, দীর্ঘদিন তালাবন্ধ থাকায়  হোষ্টেলগুলো বর্তমানে বসবাসের জন্য সম্পূর্ণরূপে অনুপযোগি হয়ে পড়েছে। জরাজীর্ণ হোষ্টেল ভবনের দরজা-জানালাগুলোর বেশিরভাগই ভাঙ্গা। বেশকিছু কৰের ছাদের পৱাস্টারগুলো খুলে খুলে পড়ছে। হোস্টেলের ফ্যানসহ বেশ কিছু সরঞ্জাম চুরিও হয়ে গেছে। হোষ্টেল ভবনগুলোতে জঙলি গাছ-গাছড়ায় ভরে গেছে। এক কথায় সম্পূর্ণরূপে বসবাসের অনুপযুক্ত।

নাম না প্রকাশ করার শর্তে শিৰার্থীরা আরো জানায়, সম্পূর্ণ কর্তৃপৰের অবহেলার কারণে বর্তমানে এ অবস’ার সৃষ্টি হয়েছে। কর্তৃপৰ অনেক আগেই এগুলোর যৎসামান্য সংস্কার করে হোষ্টেলগুলো খুলে দিতে পারতেন। কেননা তখন হোষ্টেলগুলো এতটা খারাপ অবস’ায় ছিলো না। এতে আবাসিক শিৰার্থীদের সমস্যার সমাধান অনেক আগেই হয়ে যেতো। কিন’ কর্তৃপৰ তা করেন নি। কর্তৃপৰের উদাসিনতা ও উদ্যোগের অভাবে ভবনগুলো অবহেলায়-অযত্নে জরাজীর্ণ ও বসবাসের সম্পূর্ণ অনুপযোগি হয়ে পড়েছে।

এ ব্যাপারে ইনস্টিটিউট-এর অধ্যৰের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, হোস্টেল ভবণগুলো অনেক বছরের পুরনো। এরপর দীর্ঘদিন ধরে বন্ধ থাকায় বর্তমানে হোস্টেলগুলো বসবাসের অযোগ্য হয়ে পড়েছে। হোস্টেল খুলে দেয়ার বিষয়ে শিৰার্থীদের চাপও রয়েছে। এ ব্যাপারে উর্দ্ধতন কর্তৃপৰকে চিঠিও পাঠানো হয়েছে। অনুমতি পেলেই হোস্টেলগুলো খুলে দেয়া হবে। অধ্যৰ আরো বলেন, বর্তমানে হোস্টেল তিনটি সংস্কারের প্রয়োজন। আর এতে করে আনুমানিক ২০ লাখ টাকার প্রয়োজন। এর মধ্যে ১০ লাখ টাকা বরাদ্দ হয়েছে। এই অর্থ দিয়ে চলতি অর্থবছরেই একটি ছাত্র হোষ্টেল ও একমাত্র ছাত্রী হোষ্টেলটির সংস্কার করে অতি দ্রত ২টি হোষ্টেল খুলে দেয়া হবে।

সাধারণ শিৰার্থীরা জানায়, কলেজে শক্তিশালী দুটি ছাত্র সংগঠন রয়েছে। কিন’ হোষ্টেল খোলার ব্যপারে তাদেরও কোন উদ্যোগ নেই। উক্ত দুটি ছাত্র সংগঠনের মধ্যে পারস্পরিক বন্ধুত্বপূর্ন সর্ম্পক তৈরী হলে এ অবস’া থেকে শিৰার্থীরা পরিত্রান পেতে পারে বলে তারা জানায়।

খবরঃ দৈনিক সোনালী সংবাদ

2 thoughts on “রাজশাহী পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট-এর আবাসিক শিক্ষাথীদের দুর্ভোগ চরমে

  1. স্ট্যাটাস অফ দ্যা ডেঃ

    ✍ রাজশাহী পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট-এর আবাসিক শিক্ষাথীদের দুর্ভোগ চরমে

    😀 😛

    ❥ সময়ের কাটা দুপুর ৩ টার ঘরে ► RajshahiExpress.com

    ◉ প্রোপিক চেক RajshahiExpress.com

    ◉ ফাস্ট বোটার ZI Shahin

    ╰═════════╬ BanglaBot.TK ╬═════════╯

Comments are closed.