রাজশাহী পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটে শিবির সন্দেহে শিক্ষার্থীকে পুলিশে দিলো ছাত্রলীগ

ক্যাম্পাসের খবর রাজশাহী রাজশাহী পলিটেকনিক ইন্সটিটিউট

রাজশাহী পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটে শিবির সন্দেহে ফরহাদ মাহমুদ জয় (২০) নামের এক শিক্ষার্থীকে পুলিশে দিয়েছে ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীরা।

শনিবার (০৪ নভেম্বর) দুপুর আড়াইটার দিকে এ ঘটনা ঘটে। তাকে বোয়ালিয়া থানায় রাখা হয়েছে।

ফরহাদ মাহমুদ জয় সিরাজগঞ্জের চরকোশবাড়ি সবুজপাড়া এলাকার শুকুর মাহমুদের ছেলে ও রাজশাহী পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটের মেকানিক্যাল বিভাগের শেষ বর্ষের ছাত্র।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, শনিবার দুপুরে রাজশাহী পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটে ঘোরা-ফেরা করছিলেন জয়। এসময় ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা তাকে মারধর করে বোয়ালিয়া থানায় খবর দেয়। পরে পুলিশ গিয়ে তাকে থানায় নিয়ে আসে।

ফরহাদ মাহমুদ জয় জানান, তার দাদা আব্দুল গণি ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি। তাকে অন্যায়ভাবে পিটিয়ে পুলিশে দেওয়া হয়েছে।

তবে রাজশাহী পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট ছাত্রলীগ শাখার সভাপতি মেহেদী হাসান রিমেল রিগেন জানান, জয় বিভিন্ন সময়ে ছাত্রলীগের বিভিন্ন কর্মকাণ্ডে বাধা দিতো। হল থেকে কোনো কর্মসূচি দিলে সে অন্যান্যদের সেসব কর্মকাণ্ডে যেতে নিষেধ করতো।

এছাড়া সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকেও ছাত্রলীগের পক্ষ থেকে কখনও কোনো পোস্ট দিলে তাতে বিভ্রান্তিকর কমেন্ট করতো। তার সঙ্গে যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলেও সে যোগাযোগ করেনি। এ কারণে নেতাকর্মীরা তাকে পুলিশে দিয়েছে।

মহানগরীর বোয়ালিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আমান উল্লাহ বলেন, শিবির সন্দেহে এক শিক্ষার্থীকে পুলিশে সোপর্দ করেছে ছাত্রলীগ।

তবে তারা পরিবারকে খবর দিয়েছেন। তার দাদা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি কী না তা যাচাই করা হচ্ছে। শিবির সংশ্লিষ্টতা না থাকলে তাকে ছেড়ে দেওয়া হবে বলেও জানান এ পুলিশ কর্মকর্তা।

খবরঃ বাংলানিউজ