রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তিচ্ছুদের ১০০ ফোন চুরি!

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে (রাবি) ভর্তি পরীক্ষায় অংশ নেওয়া শিক্ষার্থীদের জিনিসপত্র রাখার বিশেষ ব্যবস্থার বুথ থেকে পরীক্ষার্থীদের প্রায় ১০০ ফোন চুরি হওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

মঙ্গলবার (২২ অক্টোবর) বিশ্ববিদ্যালয়ের স্যার জগদীশ চন্দ্র বসু একাডেমিক ভবনের সামনে বসানো বুথ থেকে এসব ফোন চুরি হয়।

ভর্তিচ্ছু ও বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের সূত্রে জানা যায়, রাবির স্যার জগদীশ চন্দ্র বসু একাডেমিক ভবনের ফটকের সামনে জিনিসপত্র জমা রাখার জন্য একটি বুথ বসানো হয়। এতে ১০ টাকার বিনিময়ে ভর্তিচ্ছুদের জিনিসপত্র জমা রাখার ব্যবস্থা করা হয়।

তারা আরও জানায়, ভর্তি পরীক্ষার হলে ব্যাগ-মোবাইল নিয়ে প্রবেশ করতে না পারায় ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীরা তাদের জিনিসপত্র বুথে জমা রাখেন। বুথে ভর্তিচ্ছুদের প্রায় ১০০টি ফোন জমা রাখা হয়। পরে পরীক্ষা শেষে তারা সেখানে গেলে বুথটি খালি দেখতে পান।

এদিকে চুরি হওয়া হেল্প ডেস্ক নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা ক্ষোভ প্রকাশ করছেন।

বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী হায়দার আলী বলেন, ফোনগুলো চুরি হয়েছে কোনো একটা হেল্প ডেস্ক থেকে। তাহলে আমার প্রশ্ন প্রশাসনের কাছে, বিশ্ববিদ্যালয় থেকে অনেক আগেই বলা হয়েছিল কোন বুথ বসতে পারবে না, তাহলে কেন এ বুথগুলো বসানো হলো। কার ইশারায় তারা বুথ বসালো?

বিশ্ববিদ্যালয়ের আরেক শিক্ষার্থী কাজী মনিকা বলেন, এটা প্রশাসনের ব্যর্থতা বলে মনে করছি। প্রশাসনের সামনে কীভাবে তারা সাহস পায় এতগুলো ফোন লাপাত্তা করতে। এটা নিয়ে প্রশাসনের তদন্ত সাপেক্ষে সুদৃষ্টি কামনা করছি।

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক লুৎফর রহমান বাংলানিউজকে বলেন, যারা এর সঙ্গে জড়িত তারা কোনো ভাবে রেহাই পাবেন না। ডিবি পুলিশ এটার তদন্ত করছে। যারা ফোন চুরি করে পালিয়েছেন শিগগিরই তারা ধরা পড়বে।

খবর কৃতজ্ঞতাঃ বাংলানিউজ