রাজশাহী সেফহোমের ২ কিশোরী নিখোঁজ

রাজশাহী

রাজশাহী সরকারি সেফহোম থেকে দুই কিশোরী নিখোঁজ হয়েছেন। শনিবার রাত ১০টার পর থেকে তাদের আর পাওয়া যাচ্ছে না। সেফহোম কর্তৃপক্ষের দাবি, বাথ রুমের পিছনের গ্রীল ভেঙ্গে তারা পালিয়ে গেছে। এ ব্যাপারে রাতেই শাহ মখদুম থানায় একটি জিডি দায়ের করা হয়েছে বলে জানান সেফহোমের উপ-তত্ত্বাবধায়ক লাইজু রাজ্জাক।

নিখোঁজ দুই কিশোরীর নাম তানজিলা আক্তার ও সুমি আক্তার। এদের দুইজনের বয়স ১৬ বছর। এদের মধ্যে তানজিলার বাড়ি রংপুরের তারাগঞ্জ এলাকায়। গত ১২ সেপ্টেম্বর তাকে পবা উপজেলার বায়ায় অবস্থিত রাজশাহী সরকারি সেফহোমে পাঠায় রংপুরের একটি আদালত। আর সুমির বাড়ি নীলফামারির ডোমার এলাকায়। গত ২৯ আগস্ট নীলফামারির একটি আদালতের নির্দেশে সুমিকে রাজশাহী সরকারি সেফহোমে পাঠানো হয়।

উপ-তত্ত্বাবধায়ক লাইজু রাজ্জাক বলেন, শনিবার রাত ৯টার থেকে ১০টা পর্যন্ত বিদ্যুৎ ছিল না। এ সময়ের মধ্যে তারা দুইজন বাথ রুমের পিছনের ভেন্টিলিটারের গ্রীল ভেঙ্গে তারা পালিয়ে গেছে। রাত ১০টার পর থেকে এলাকায় অনেক খোঁজাখোঁজি করে তাদের না পেয়ে থানায় জিডি করা হয়েছে বলে জানান তিনি।

লাইজু আরও বলেন, সন্ধ্যায় মুঠো ফোনে তাদের মায়ের সঙ্গে কথা বলানো হয় ওই দুই কিশোরীকে। তাদের নিয়ে যাওয়ার ব্যবস্থা করতে তার মাকে বলা হয়ে ছিল। কারণ তাদের বিরুদ্ধে কোন মামলা নেয় বলে জানান তিনি।

শাহ মখদুম থানার ওসি জিল্লুর রহমান বলেন, বাথ রুমের ভেন্টিলিটারের গ্রীল ভেঙ্গে দুই কিশোরী পালিয়ে গেছে বলে অভিযোগ করে শনিবার রাতে সেফহোমের উপ-তত্ত্বাবধায়ক লাইজু রাজ্জাক থানায় জিডি করেছেন। বিষয়টি পুলিশ তদন্ত করছে এবং ওই দুই কিশোরীকে উদ্ধারে তৎপরতা চালাচ্ছে। ইতোমধ্যেই রংপুর ও নীলফামারিরসহ বিভিন্ন থানায় বার্তা পাঠানো হয়েছে বলে জানান ওসি।

খবরঃ ডেইলি সানশাইন

1 thought on “রাজশাহী সেফহোমের ২ কিশোরী নিখোঁজ

Comments are closed.