রাজশাহী সেফহোম থেকে দুই তরুণী লাপাত্তা

পবা রাজশাহী

রাজশাহীর পবা উপজেলার বায়া সেফহোম থেকে পালিয়ে গেছেন দুই তরুণী। শনিবার (১৬ সেপ্টেম্বর) রাতের কোনো এক সময় এ ঘটনা ঘটেছে বলে মনে করছে কর্তৃপক্ষ।

পলাতকদের মধ্যে একজনের বাড়ি নীলফামারী জেলায় ও আরেকজন রংপুরের তারাগঞ্জের বাসিন্দা।

রাজশাহী সেফহোমের তত্ত্বাবধায়ক লাইজু আরা জানান, শনিবার রাতে খাওয়ার পর খোঁজ করে দেখা যায় যে সেফহোমের ওই তরুণী তাদের কক্ষে নেই।

‘পরে দেখা যায় রুমের উপরের গ্রিল ভাঙা। তারা রুমের গ্রিল ভেঙে বাইরে বের হয়। তবে গ্রিল ভেঙে বাইরে বের হলেও সেফহোমের প্রাচীরে তার কাঁটার বেড়া দেওয়া আছে। সেই তার ডিঙিয়ে কিভাবে তারা দুইজন বাইরে বের হলো তা ভাবিয়ে তুলেছে কর্তৃপক্ষকেও।’

বর্তমানে বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে জানিয়ে তিনি বলেন, এখনও পর্যন্ত কাউকে এই ঘটনায় দোষী হিসেবে শনাক্ত করা যায়নি।

লাইজু আরও জানান, সেফহোমের রুমগুলোতে দুই জন করে নারী আনসার পাহারায় থাকেন। নিখোঁজ হওয়ার পরে তাদের জিজ্ঞাসাবাদও করা হয়েছে। কিন্তু তারা কিছুই বলতে পারছেন না।

এদিকে রাতেই নিখোঁজের বিষয়টি পুলিশকে জানানো হয়েছে। এছাড়া রাজশাহী রেলওয়ে স্টেশন, বাস টার্মিনালেও গভীর রাতে লোক পাঠিয়ে খোঁজা হয়েছে। তবে তাদের পাওয়া যায়নি।

জানা যায়, নিখোঁজ দুই তরুণীর বিরুদ্ধে কোনো মামলা ছিল না। থানায় সাধারণ ডায়েরির (জিডি) প্রেক্ষিতে আদালতের মাধ্যমে তাদের সেফহোমে রাখা হয়।

খবরঃ বাংলানিউজ

1 thought on “রাজশাহী সেফহোম থেকে দুই তরুণী লাপাত্তা

Comments are closed.