রাবিতে অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা এড়াতে প্রশাসনের অভিযান

ক্যাম্পাসের খবর রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়

শিক্ষার্থীদের জন্য নিরাপত্তা বাড়াতে ও ক্যাম্পাসে যেকোনো ধরনের অশ্লীল ও অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা এড়াতে অভিযান চালিয়েছে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় (রাবি) প্রশাসন। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা সাড়ে ৫টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর ড. লুৎফর রহমান সহকারী প্রক্টদের নিয়ে এ অভিযান চালান।

জানা গেছে, সম্প্রতি ক্যাম্পাসের বিভিন্ন স্থানে শিক্ষার্থীরা ছিনতাই ও ছাত্রীরা যৌন হয়রানিসহ শ্লীলতাহানির শিকার হচ্ছেন। এ নিয়ে শিক্ষার্থীদের মধ্যে উদ্বেগ ছড়িয়ে পড়েছে। প্রশ্নবিদ্ধ হচ্ছে প্রশাসনের দায়িত্ব। যার মধ্যে গত মঙ্গলবার সন্ধ্যার একটু পরে দুই যুবক বাইকে করে এসে এক ছাত্রীর ওড়না নিয়ে একটু দূরে ফেলে চলে যায়। আশে পাশে দু’একজন থাকলেও কেউ এর প্রতিবাদ করেনি।

তাছাড়া ১৭ নভেম্বর বাংলা বিভাগের এক ছাত্রীকে জোর করে গাড়িতে করে এসে তুলে নিয়ে যায় তার সাবেক স্বামী। ফলে ছাত্রীদের নিরাপত্তা দেয়ার ব্যাপারে প্রশ্নের মুখে পড়ে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।

ছাত্রীদের যৌন নিপীড়নের পাশাপাশি ঘটে চলেছে ছিনতাইয়ের ঘটনা। চলতি বছরের ৮ মে জুবেরী ভবনের সামনে ছিনতাইয়ের শিকার হন গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের প্রথম বর্ষের এক শিক্ষার্থী। ৩০ এপ্রিলে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের এক শিক্ষার্থী বান্ধবীর সাথে দেখা করতে এসে প্যারিস রোডে ছিনতাইয়ের শিকার হন। এ বিষয়ে জানতে চাইলে প্রক্টর বলেন, পূর্বের অনভিপ্রেত এবং অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে ক্যাম্পাসে নিরাপত্তা জোরদারের লক্ষ্যে ও বহিরাগতদের প্রবেশ ঠেকাতে আমাদের এ অভিযান। এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন পুলিশ সার্জেন্ট মো. জাহিদুল ইসলাম।

খবরটি প্রকাশ করেছেঃ নয়া দিগন্ত অনলাইন