রাবিতে শিবির সন্দেহে ১৩ শিক্ষার্থী আটক

ক্যাম্পাসের খবর রাজশাহী রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের শের-ই-বাংলা হলে তল্লাশি চালিয়ে শিবির সন্দেহে ১৩ শিক্ষার্থী ও হল মসজিদের ইমামকে আটক করেছে পুলিশ।

শনিবার (২০ আগস্ট) বিকেল ৫টার দিকে তাদের আটক করা হয়।

রাজশাহী মহানগর পুলিশের উপকমিশনার (পূর্ব) আমীর জাফর জানান, বিকেলে হলে তল্লাশি চালিয়ে শিবিরের বই, নথি ও ডায়েরি উদ্ধার করা হয়। তল্লাশি চলাকালে শিবির সন্দেহে ১৩ শিক্ষার্থী ও এক ইমামকে আটক করা হয়েছে।

আটককৃতরা হলেন- দর্শন বিভাগের মাস্টার্সের আবুল খায়ের, একই বিভাগের চতুর্থ বর্ষের ইউসুফ আলী, ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগের মাস্টার্সের আবদুস
সবুর, একই বিভাগের মাস্টার্সের লোকমান হোসেন সিরাজী, মেহেদি হাসান, চতুর্থ বর্ষের আবদুল হক মানিক, শরীফুল ইসলাম, ইসলামের ইতিহাস বিভাগের তৃতীয় বর্ষের মুরাদ, ক্রপ সায়েন্স বিভাগের মাস্টার্সের ফাহাদ আলম, ভাষা বিভাগের মাস্টার্সের রায়হান, প্রাণিবিদ্যা বিভাগের মাস্টার্সের সিরাজুল ইসলাম সুমন, মার্কেটিং বিভাগের মাস্টার্সের আনোয়ারুল ইসলাম, তৃতীয় বর্ষের মোস্তাক আহমেদ। এছাড়া ইমাম সানাউল্লাহকে (৫৫) আটক করা হয়েছে।

আটককৃতদের মতিহার থানায় নেওয়া হয়েছে। জিজ্ঞাসাবাদ শেষে তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

বিশ্ববিদ্যালয়ের উপউপাচার্য প্রফেসর চৌধুরী সারওয়ার জাহান বলেন, ‘দেশে জঙ্গি তৎপরতার পরিপ্রেক্ষিতে আমরা বিশ্ববিদ্যালয়ে সতর্ক আছি। ক্যাম্পাসে কঠোর নজরদারি বজায় রাখা হয়েছে। এরই অংশ হিসেবে আইনশৃঙ্খলাবাহিনীর সহায়তায় পূর্ব তথ্যের ভিত্তিতে একটি হলে তল্লাশি চালিয়ে কয়েকজনকে আটক করেছে পুলিশ।’

খবরঃ বাংলানিউজ

1 thought on “রাবিতে শিবির সন্দেহে ১৩ শিক্ষার্থী আটক

Comments are closed.