রাবিতে হলে ফাটল, শিক্ষার্থীদের মানববন্ধন

রাজশাহী রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়

ru_motiher_hall_177212645ভূমিকম্পে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) নবনির্মিত মতিহার হলের কয়েকটি জায়গায় ফাটলের ঘটনায় বিক্ষোভ ও মানববন্ধন করেছেন শিক্ষার্থীরা।
হল নির্মাণে ঠিকাদারের বিরুদ্ধে নিম্নমানের নির্মাণসামগ্রী ব্যবহার এবং প্রকৌশলীদের দায়িত্বে অবহেলা ও অনিয়মের অভিযোগে এ কর্মসূচি পালিত হয়।

সোমবার (২৭ এপ্রিল) দুপুরে মতিহার হলের আবাসিক শিক্ষার্থীরা বিক্ষোভ ও মানববন্ধন শেষে তিন দফা দাবিতে উপাচার্যের কাছে স্মারকলিপি দেয়। মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন, হলের আবাসিক শিক্ষার্থী রেজাউল করিম শামীম, বোরহান উদ্দিন বাপ্পী ও রাবি ছাত্রলীগের সভাপতি মিজানুর রহমান রানা। শিক্ষার্থীদের দাবিগুলো হলো, দ্রুত ঝুঁকিপূর্ণ মতিহার হল ভবন ভেঙে পুনরায় নিমার্ণ করা, আগামী ৭২ ঘণ্টার মধ্যে হলের শিক্ষার্থীদের আবাসনের ব্যবস্থা করা ও ভবন নিমার্ণে জড়িত ঠিকাদার ও প্রকৌশলীর কঠোর শাস্তির ব্যবস্থা করা।

সরেজমিন মতিহার হলে গিয়ে দেখা যায়, হলের পশ্চিম ব্লকের নিচতলা, দ্বিতীয় ও তৃতীয় তলার কয়েকটি কক্ষে ফাটল দেখা দিয়েছে। এছাড়া পূর্ব ব্লকেরও কয়েকটি জায়গায় ফাটল দেখা গেছে। এছাড়া ভবনের দেয়ালে শক্ত কিছু দিয়ে আঘাত করলে পলেস্তারা খসে পড়ছে। এতে আতঙ্কে রয়েছেন শিক্ষার্থীরা।

১০২নং কক্ষের আবাসিক শিক্ষার্থী আনিছুর রহমান, রেজাউল করিম শামীম ও আক্তারুজ্জামান খান রাজিব জানান, তাদের কক্ষে ফাটল দেখা গেছে। গত দুই দিনের ভূমিকম্পে তারা আতঙ্কিত হয়ে পড়েছেন।

এ ব্যাপারে বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রকৌশলী সিরাজুম মুনীর বলেন, আমরা হলের ভবন ঘুরে দেখেছি। কিছু জায়গায় ফাটল দেখা গেছে। কিন্তু সেগুলো গুরুতর নয়। শিক্ষার্থীদের আতঙ্কিত না হওয়ার পরামর্শ দেন তিনি। বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ উপাচার্য প্রফেসর চৌধুরী সারওয়ার জাহান বলেন, তিনি প্রধান প্রকৌশলীকে নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের পূর্ব ও পশ্চিম পাড়ার কয়েকটি পুরাতন ভবন এবং মতিহার হল ঘুরে দেখেছেন। ফাটলগুলো খুব বেশি না।

তবুও এ ঘটনায় ভূতত্ত্ব ও খনিবিদ্যা বিভাগের প্রফেসর ড. ইউনুস আহমদ খানকে সভাপতি করে পাঁচসদস্য বিশিষ্ট কমিটি গঠন করা হয়েছে। কমিটি বিষয়টি খতিয়ে দেখবে বলে তিনি জানান।