রাবির ২ শিক্ষার্থীকে পেটালো কর্মচারী

ক্যাম্পাসের খবর রাজশাহী রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) দুই শিক্ষার্থীকে মারধর করেছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের এক কর্মচারী ও তার সহযোগীরা।

বৃহস্পতিবার (১৮ মে) সকালে রাজশাহীর বানেশ্বর থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের বাসে ক্যাম্পাসে আসার সময় এ ঘটনা ঘটে।

অভিযুক্ত সুমনুজ্জামান সুমন বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রকৌশল শাখার সহায়ক কর্মচারী। তিনি পুঠিয়া উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক। সুমনের বিরুদ্ধে একাধিক মামলা রয়েছে।

মারধরের শিকার মানিক আলী ও রতন আলী বিশ্ববিদ্যালয়ের ফার্সি ভাষা ও সাহিত্য বিভাগের শিক্ষার্থী। মানিক বেলপুকুর ইউনিয়নের ছাত্রলীগের সভাপতি এবং বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সম্পাদক।

ক্যাম্পাস সূত্রে জানা যায়, কয়েক মাস আগে সুমনের নামে একটি ছিনতাই মামলা হয়। এই মামলার সাক্ষীদের একজন মারধরের শিকার মানিক।

হামলার শিকার রতন আলী বলেন, বানেশ্বর থেকে সকাল সাড়ে ৯টায় ছেড়ে আসা বিশ্ববিদ্যালয়ের বাসে করে আমরা ক্যাম্পাসে আসছিলাম। বাসটি বেলপুকুর এলাকায় এলে সুমন বাসে ওঠেন। বাসে উঠেই তিনি অকারণে আমাকে বকাঝকা শুরু করেন। এসময় পাশে বসে থাকা আমার বন্ধু মানিক জানতে চান, এ রকম আচরণ করছেন কেন? তখন মানিককে চড় মারেন সুমন। পরে আমাদের দু’জনকেই কিল-ঘুষি মারতে থাকেন তিনি। এসময় সুমনের সঙ্গে স্থানীয় দুইজন স্থানীয় ছেলে ছিলেন। পরে বাস ক্যাম্পাসে এলে আমরা নেমে যাই। বাস থেকে নামার পর সুমনের সঙ্গে আবার আমাদের তর্ক বেধে যায়। একপর্যায়ে সুমন ইট নিয়ে আমাদের মারতে এলে উপস্থিত কর্মকর্তা ও শিক্ষার্থীরা বাধা দেন।

মারধরের ঘটনা স্বীকার করে কর্মচারী সুমন বলেন, তেমন কিছুই হয়নি। সামান্য বিষয় যে এতোদূর গড়াবে, আমি ভাবিনি। একটা ভুল বোঝাবুঝিতে মানিককে ছোট ভাই হিসেবে চড় মেরেছি।

বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রক্টর অধ্যাপক মুজিবুল হক আজাদ বলেন, এ ঘটনায় ওই দুই শিক্ষার্থী লিখিত অভিযোগ দিয়েছে। বিষয়টি খতিয়ে দেখে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

খবরঃ বাংলানিউজ