রাবি কর্মচারীর বাড়িতে বোমা উদ্ধারের ঘটনায় মামলা

ক্যাম্পাসের খবর রাজশাহী রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) এক কর্মচারীর বাড়ি থেকে অস্ত্র ও বিস্ফোরক উদ্ধার হওয়ার ঘটনায় নগরীর বোয়ালিয়া ও মতিহার থানায় পৃথক দুটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

বুধবার (০২ আগস্ট) বিকেলে মতিহার থানায় বিস্ফোরক আইনে ও বোয়ালিয়া থানায় অস্ত্র আইনে মামলা দু’টি দায়ের করেছে র‌্যাব-৫।

আটক রাবি কর্মচারী আবু রাজ তুহিন ওরফে সাধু (২৮) এবং তার সহযোগী সৈয়দ রিফাত রেজা ওরফে রিজু (৩০) বর্তমানে বোয়ালিয়া থানায় রয়েছে।

তাদের দায়েরকৃত মামলায় গ্রেফতার দেখানো হয়েছে। জিজ্ঞাসাবাদ শেষে আগামীকাল বৃহস্পতিবার (০৩ আগস্ট) সকালে তাদের আদালতে পাঠানো কথা রয়েছে।

রাজশাহীর মতিহার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মেহেদী হাসান জানান, আসামিদের অস্ত্রসহ বোয়ালিয়া থানা এলাকা থেকে আটক করা হয়েছে।

তাই, আসামিরা বোয়ালিয়া থানায় আছে। তবে যেহেতু পরে অভিযান চালিয়ে মতিহার থানা এলাকা থেকে বোমা ও বিস্ফোরকদ্রব্য উদ্ধার হয়েছে। তাই মতিহার থানায় বিস্ফোরক আইনে মামলা দায়ের করেছে। র‌্যাব বাদী হয়ে আটককৃত দুজনের বিরুদ্ধে এ মামলা দায়ের করেছে বলে জানান মতিহার থানার এ পুলিশ কর্মকর্তা।

রাজশাহীর বোয়ালিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আমান উল্লাহ বলেন, ‘আসামিরা থানা হাজতে আছে। বুধবার দুপুরে অস্ত্র আইনে একটি মামলা করেছে র‌্যাব। আসামিদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে বলেন জানান ওসি ।’

এর আগে মঙ্গলবার সন্ধ্যা ৬টার দিকে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে রাবি কর্মচারী আবু রাজ তুহিন ওরফে সাধু ও রিজুকে নগরের ভদ্রা মোড় এলাকা থেকে আটক করা হয়।

পরে তাদের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী নগরীর মতিহার থানার নতুন বুধপাড়া এলাকায় সাধুর বাড়ি থেকে গুলিসহ দুইটি পিস্তল এবং ৫টি বোমা ও বিস্ফোরকদ্রব্য উদ্ধার করা হয়। অস্ত্র ব্যবসায় জড়িত থাকার অভিযোগে সাধু ও তার সহযোগী রিজুকে আটক করা হয়।

খবরঃ বাংলানিউজ