রাবি প্রশাসনের আইন লঙ্ঘনের অভিযোগ

ক্যাম্পাসের খবর রাজশাহী রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় পাঠক ফোরামের নিজস্ব ভবন নির্মাণে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের জমি বরাদ্দে আইন লঙ্ঘনের অভিযোগ এনে বিষয়টির প্রতিবাদ জানিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় শাখা প্রগতিশীল ছাত্রজোট। শনিবার দুপুরে ছাত্রজোটের দলীয় টেন্টে এক সংবাদ সম্মেলনে এই প্রতিবাদ জানান তারা।
সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্র ইউনিয়নের সভাপতি মাহমুদুল হাসান আসিফ।
লিখিত বক্তব্যে উল্লেখ্য করা হয়, বিশ্ববিদ্যালয় কারও পৈত্রিক সম্পত্তি নয়। এর জন্য রয়েছে সুস্পষ্ট নীতিমালা। যেখানে ইচ্ছা মতো কাউকে জমি বরাদ্দ দেওয়া যায় না। পাঠক ফোরামকে জমি বরাদ্দ দিয়ে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ সেই আইন লঙ্ঘন করেছে।
এসময় পাঠক ফোরামকে জমি বরাদ্দের ব্যাপারে প্রশাসনের অবস্থান পরিস্কার করার দাবি জানান তারা। লিখিত বক্তব্যে তারা দাবি করেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের জমি  অনিয়ম করে কাউকে বরাদ্দ দেওয়া হয় তবে পরবর্তীতে বিভিন্ন সংগঠন, মাছের আড়ত, ট্রাক টার্মিনাল, বিউটি পারলার, কবরস্থান, বহুতলা অ্যামার্টমেন্ট সবই গড়ে তোলার জন্য প্রশ্ন উঠবে।
এদিকে সম্মেলন থেকে ৫ দফা দাবি পেশ করা হয়। দাবিগুলো হলো, প্রশাসনের বিরুদ্ধে দূর্নীতির অভিযোগুলো পরিস্কার করা। কোন সংগঠন বা ব্যাক্তিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের জমি না দেওয়া, সান্ধ্য আইন বাতিল ও ২ ফেব্রুয়ারির মামলা প্রত্যাহার করা, অবিলম্বে রাকসু নির্বাচন দিতে হবে এবং ক্যাম্পাসের বিজ্ঞান ভবনের নামগুলো দেশের বিজ্ঞানীদের নামে করতে হবে।
এবিষয়ে জানতে চাইলে বিশ্ববিদ্যালয়ের কোষাধ্যক্ষ প্রফেসর সায়েন উদ্দিন আহমেদ বলেন, কিভাবে পাঠক ফোরামকে জমি দেওয়া হয়েছে সেটা আমি জানি না। এই সংক্রান্ত কোন সভায় তিনি ছিলেন না বলেও জানান।
আইন লঙ্ঘনের ব্যাপারে তিনি বলেন, সিন্ডিকেটে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। যারা সেখানে ছিলেন তারাই ভাল বলতে পারবেন।
উল্লেখ্য, ২০১৩ সালের ২৩ ও ২৪ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত প্রশাসনের ৪৫০তম সিন্ডিকেট সভায় পাঠক ফোরামকে ভবন নির্মানের জন্য জায়গা দেয় বিশ্ববিদ্যায় প্রশাসন।

খবরঃ ক্যাম্পাসলাইভ২৪