শেখ হাসিনার সরকার জনবান্ধব

রাজশাহী

খাদ্যমন্ত্রী অ্যাডভোকেট কামরুল ইসলাম বলেছেন, শেখ হাসিনার সরকার জনবান্ধব সরকার। জনগণের সার্বিক কল্যাণে এ সরকার নিরলসভাবে পরিশ্রম করে যাচ্ছে। আগামী দিনে বাংলাদেশে যাতে একটি পরিবারও দরিদ্র না থাকে সে পরিকল্পনা নিয়ে এগিয়ে যাচ্ছে সরকার।

বুধবার (২৬ অক্টোবর) দুপুরে রাজশাহীর একটি রেস্তোরাঁয় আয়োজিত ‘নিরাপদ খাদ্য আইন ও আমাদের করণীয়’ শীর্ষক কর্মশালার উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

খাদ্যমন্ত্রী বলেন, ‘বাংলাদেশ এখন উন্নয়নের রোল মডেল। বাংলাদেশের সার্বিক সাফল্য বিশ্ব নেতাদের কাছে প্রশংসিত হচ্ছে। গণমুখি কর্মসূচির মাধ্যমে এদেশ এখন সামনের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে’।

তিনি বলেন, ‘খাদ্য ঘাটতির দেশ থেকে আমরা খাদ্য রপ্তানির দেশে পৌঁছেছি। চাল উৎপাদনে বাংলাদেশ এখন বিশ্বে চতুর্থ স্থানে রয়েছে। ১৯৯৬ সালে এদেশে ৪০ লাখ মেট্রিক টন খাদ্য ঘাটতি ছিল। এখন বছরে আমরা দুই লাখ মেট্রিক টন খাদ্য রপ্তানি করতে পারছি। খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণতা অর্জনই আমাদের মূল লক্ষ্য নয়। জনগণের কাছে যাতে নিরাপদ খাদ্য পৌঁছাতে পারে সেই সাংবিধানিক অধিকার রক্ষার জন্য বর্তমানে ১৮টি মন্ত্রণালয় এবং স্থানীয় সরকারের ৪৮০টি সংস্থা কাজ করছে’।

মন্ত্রী আরও বলেন, বিশ্বের বিভিন্ন দেশের সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে খাদ্যের নিরাপত্তা বিধানে আন্তর্জাতিক বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ অনুযায়ী বিধিমালা তৈরির কাজ শেষ পর্যায়ে। খাদ্য উৎপাদন থেকে শুরু করে বিপণন, খাদ্য পরিবেশনের প্রতিটি ধাপে খাদ্যের গুণগতমান নিয়ন্ত্রণের উদ্দেশ্যে বাজার পর্যবেক্ষণের কাজ চলছে।

মন্ত্রী এ সময় সবাইকে এ ব্যাপারে সার্বিক সহযোগিতা করার আহ্বান জানান।

রাজশাহী বিভাগীয় কমিশনার আবদুল হান্নানের সভাপতিত্বে কর্মশালায় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন খাদ্য মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি আবদুল ওয়াদুদ দ্বারা এমপি ও বাংলাদেশ নিরাপদ খাদ্য কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ মাহফুজুল হক।

খবরঃ বাংলানিউজ