শোয়ার ঘরে গৃহবধূর গলাকাটা মরদেহ

মোহনপুর রাজশাহী

রাজশাহীর মোহনপুরে জুলেখা বেগম (৪২) নামের এক গৃহবধূ গলাকাটা মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। মঙ্গলবার দুপুরে উপজেলার দুর্গাপুর গ্রামের নিজ শোয়ার ঘর থেকে ওই গৃহবধূর মরদেহটি উদ্ধার করা হয়।

নিহত জুলেখা বেগম ওই গ্রামের সোলেমান আলীর স্ত্রী। ময়নাতদন্তের জন্য মরদেহটি রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতাল মর্গে নেয়া হয়েছে। খবর পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন পুলিশ সুপার মো. শহিদুল্লাহ।

নিহতের পরিবারের দাবি, ওই গৃহবধূ মানসিক ভারসাম্যহীন। মঙ্গলবার ভোর ৬টার দিকে নিজেই গলায় ধারালো ব্লেড চালিয়ে দেন। এতে ঘটনাস্থলেই মারা যান তিনি। এর আগেও ওই নারী কয়েকবার আত্মহত্যার চেষ্টা করেছে। এ ঘটনায় নিহতের ভাই বাদী হয়ে থানায় অপমৃত্যুর মামলা দায়ের করেছেন।

মোহনপুর থানা পুলিশের পরিদর্শক (তদন্ত) আফজাল হোসেন বলেন, প্রাথমিক তদন্তে এটি আত্মহত্যা বলে ধারণা করা হচ্ছে। তবে বিষয়টি গুরুত্বের সঙ্গেই তদন্ত করছে পুলিশ। আপাতত এনিয়ে অপমৃত্যু মামলা হয়েছে।

নিহতের স্বজনদের বরাত দিয়ে আফজাল হোসেন বলেন, ভোরে কিছু সময়ের জন্য বাড়ির বাইরে বেরিয়েছিলেন সোলেমান আলী। ওই সময় তার স্ত্রী জুলেখা বেগম ধারালো ব্লেড দিয়ে নিজের গলা কেটে দেন। শোয়ার ঘরের জানালা দিয়ে গলাকাটা অবস্থায় ওই নারীকে ছটফট করতে দেখেন প্রতিবেশীরা। তবে উদ্ধারের আগেই তিনি মারা যান। খবর পেয়ে দুপুরে পুলিশ গিয়ে মরদেহ উদ্ধার করে থানায় নেয়।

খবর কৃতজ্ঞতাঃ জাগোনিউজ২৪