সংস্কৃতিকে কোন দিন চেপে রাখা যায় না

রাজশাহী

উপমহাদেশের প্রখ্যাত কথা সাহিত্যিক অধ্যাপক হাসান আজিজুল হক বলেছেন,যে সংস্কৃতিতে বৈচিত্র আছে সেটাই হচ্ছে প্রকৃত সংস্কৃতি। সংস্কৃতিকে কোন দিন কিছু দিয়ে চেপে রাখা যায় না। সেটা কোন না কোনভাবে আলোকচ্ছটার মত প্রজ্বলিত হয়ে উঠবেই। গতকাল শুক্রবার সন্ধ্যায় রাজশাহী মিয়াপাড়াস’ হোমিওপ্যাথিক মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে ঋত্বিক ঘটকের ৯১ তম জন্মবার্ষিকী উপলৰে ঋত্বিক ঘটক সম্মাননা পদক প্রদান ও  ৫ দিনব্যাপী চলচ্চিত্র উৎসবের উদ্বোধনকালে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

অধ্যাপক হাসান আজিজুল হক বলেন, রাজশাহীর সাংস্কৃতিক অঙ্গন এখন উজ্জীবিত হয়ে উঠছে। এর পরিধি অনেক দূর পর্যন্ত যেতে পারে। এমন এক সময় ছিল সে সময় চলচ্চিত্রের কথা বলতে পারতো না। কিন’ এখন আর সে অবস’া নাই। এখন তার বিকাশ অনেক দূর এগিয়ে গেছে। চরচ্চিত্র এখন একটি শক্তিশালী গণমাধ্যমে পরিণত হয়েছে।

ঋত্বিক ঘটক সোসাইটির সভাপতি ডা.এফ এমএ জাহিদের সভাপতিত্বে অতিথি হিসাবে উপসি’ত থেকে বক্তব্য রাখেন রাসিকের সাবেক মেয়র ও মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি এএইচএম খায়র্বজ্জামান লিটন, রাজশাহীস’ ভারতীয় সহকারি হাইকমিশনার অভিজিৎ চট্টোপাধ্যায়, কবিকুঞ্জের সভাপতি প্রফেসর র্বহুল আমিন প্রামানিক,রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় চলচ্চিত্র সংসদের সভাপতি ড. সাজ্জাদ বকুল। এতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন,উৎসবের পরিচালক ও রাজশাহী ফিল্মসোসাইটির  সভাপতি আহসান কবির লিটন।

এবারের উৎসবে চলচ্চিত্র নির্মাণে অবদানের জন্য ভারতের আন্তর্জাতিক  খ্যাতিসম্পন্ন চলচ্চিত্রকার বুদ্ধদেব দাশগুপ্ত, বাংলাদেশের আন্তর্জাতিক খ্যাতি সম্পন্ন চলচ্চিত্রকার মোর্শেদুল ইসলাম, ভারতের প্রেমেন্দ্র মজুমদার ও রাজশাহীর আবু তাহেরকে ঋত্বিক ঘটক সম্মাননা পদক প্রদান করা হয়। অনুষ্ঠান চলাকালীন ঋত্বিক ঘটকের মিয়াপাড়াস’ বাড়ি সংলগ্ন চত্বরে মোমবাতি প্রজ্বলন করে এই উৎসবের উদ্বোধন করা হয়।

খবরঃ দৈনিক সোনালী সংবাদ