স্ত্রীকে আনতে গিয়ে নিজেই নিখোঁজ

নাটোর রাজশাহী বিভাগ

শ্বশুরবাড়ি থেকে স্ত্রীকে আনতে গিয়ে নওগাঁর রানীনগরে ২০ দিন ধরে রহস্যজনকভাবে জুয়েল ইসলাম (৩০) নামের এক যুবক নিখোঁজ রয়েছেন জুয়েল রানীনগর উপজেলার সিংড়াডাঙ্গা গ্রামের আমজাদ হোসেনের ছেলে।

সম্ভাব্য সকল স্থানে খোঁজাখুঁজি করে সন্ধান না পাওয়ায় তার বড় ভাই রানীনগর থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেছেন।

জুয়েল ইসলামের বড় ভাই আনোয়ার হোসেন জানান, জুয়েল ৫ বছর আগে বগুড়া জেলার আদমদীঘি উপজেলার ছাতনী গ্রামের আজাদ হোসেনের মেয়ে কেয়া বেগমকে (২৬) বিয়ে করেন।

বিয়ের পর স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে পারিবারিক বিষয় নিয়ে প্রায়ই ঝগড়া-বিবাদ লেগে থাকত। এরই ধারাবাহিকতায় কেয়া গত ২৬ এপ্রিল তার বাবার বাড়ি ছাতনী গ্রামে চলে যায়। দু-তিন দিন যাবৎ দেনদরবারের শেষে জুয়েল তার নিজস্ব টেম্পো নিয়ে গত ২ মে দুপুরে তার বাড়ি থেকে স্ত্রীকে আনতে শ্বশুরবাড়ি ছাতনী গ্রামের উদ্দেশে রওনা দেন। পরে বাড়িতে ফিরে না আসায় এবং তার ব্যবহৃত মোবাইল ফোন বন্ধ থাকায় ছাতনী গ্রামসহ সম্ভাব্য সকল স্থানে খোঁজাখুঁজি করে তার কোনো সন্ধান পাওয়া যায়নি। এ ঘটনায় রানীনগর থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করা হয়েছে।

রানীনগর থানার ওসি আবদুল্লাহ আল মাসউদ চৌধুরী জানান, শুক্রবার বিকেলে নিখোঁজ জুয়েলের বিষয়ে থানায় জিডি হয়েছে। তার সন্ধান পেতে পুলিশ সব ধরনের চেষ্টা অব্যাহত রেখেছে।