হালকা শীতের ফ্যাশন

জীবনযাপন

যদিও এখন হেমন্তকাল তবু শীত তার আগমনী বার্তা জানিয়ে দিচ্ছে প্রকৃতিতে। ভোরের ঘাসের বুকে শিশিরের টলমলে উপস্থিতি, কুয়াশার হালকা চাদর আর রাত নামলেই একটু একটু করে জেঁকে বসা ঠান্ডা- এসবই তো শীতের পূর্বাভাস।

গরমের ফুরফুরে পোশাকগুলো এবার তুলে রাখার পালা। একটু ভারী আর ঠান্ডা নিবারণকারী পোশাক এবার বেছে নিতেই হয়। নয়তো হঠাৎ আসা শীতে ঠান্ডা লেগে যেতে পারে যেকোনো সময়। তবে সেইসঙ্গে ফ্যাশনটাও বজায় থাকা চাই।

জ্যাকেট আর ব্লেজারের মিশ্রণে তৈরি নতুন ধরনের শীত পোশাক এখন ছেলেদের পছন্দের শীর্ষে। পাতলা বা কৃত্রিম চামড়া, কটন, গ্যাবার্ডিন কাপড়ের ব্লেজার বা জ্যাকেট, উলের তৈরি পাতলা নানা রঙের সোয়েটার পাওয়া যাচ্ছে।

তবে এসব জ্যাকেটে হুডি, বড় আকারের বোতাম, হাতা বা নিচের দিকটায় নানা ধরনের কাটের চল এসেছে। কোনো কোনো জ্যাকেটের সামনের দিকে বোতামের পরিবর্তে ব্যবহার করা হয়েছে চেইন। চাইলে জ্যাকেটের বুক খুলে ভেতরে রঙিন টি-শার্ট পরে বেরোতে পারেন।

কটন কাপড়ের প্রিন্ট, অ্যাপলিক করা, চেক, স্ট্রাইপের হাতা ছাড়া ও হাতাওয়ালা ওভেন হুডিস এবার শীতে মেয়েদের পছন্দের শীর্ষে রয়েছে। এসব ওভেন হুডিসে বুকের ওপরের একটু অংশ ফাড়া, বিভিন্ন ডিজাইনের বোতাম, কোমরের দিকে বিভিন্ন ধরনের বেল্ট লাগানো ও নিচের দিকটায় নানা ধরনের কাটের বৈচিত্র্য রয়েছে।

এছাড়া কটন কাপড়ের বিভিন্ন রঙের স্ট্রাইপের সুয়িট টপসও এবারের শীতে মেয়েদের বেশ পছন্দের তালিকায় রয়েছে। এগুলো হুডি ও হুডি ছাড়াও হয়ে থাকে।

ফ্যাশনেবল তরুণীরা বিভিন্ন রঙের শার্ট বা ফতুয়ার সঙ্গে স্কার্ফ ব্যবহার করতে পারে। স্কার্ফ এমন একটা ফ্যাশন অনুষঙ্গ, যা শীত বা গ্রীষ্ম যে কোন ঋতুতে যেকোনো পোশাককেই দারুণ আকর্ষণীয় করে তোলে। তবে নিজেকে উষ্ণ রাখার অনুষঙ্গ যাই হোক না কেন, সেটি যেন আপনার সঙ্গে মানানসই হয় সেদিকে অবশ্যই খেয়াল রাখতে হবে।

এবার বিভিন্ন ধরনের জ্যাকেটের পাশাপাশি শর্ট হুডি ব্লেজার, ফুল হাতা হুডি শার্ট ও টি-শার্টের চাহিদা হতে পারে ব্যাপক। শার্টগুলোয় চেইনের সঙ্গে হুডি লাগানো।

চাইলে এসব হুডি খুলেও রাখা যাবে এবং শীতের পরও শার্টগুলো পরা যাবে। এখন শুধু এক কালারের নয়; এসব জ্যাকেট, ব্লেজার, সোয়েটার ও শার্টে থাকে বিভিন্ন চেক, প্রিন্ট ও রঙের ব্যবহার আর কাটেও থাকে ভিন্নতা।

একটা সময় ছিল যখন কোটি কেবলমাত্র ব্লেজার, স্যুট কিংবা ওভার কোটের নিচেই বেশি শোভা পেত। কিন্তু এখনকার সময়ে কোটির ফ্যাশনে ঘটেছে বিশাল পরিবর্তন। ফ্যাশনের অন্যতম উপাদান হিসেবে কোটি তরুণ-তরুণীদের কাছে ভীষণ জনপ্রিয়।

কোটিও হতে পারে হালকা শীতে ফ্যাশনের অন্যতম পোশাক। ফরমাল, ক্যাজুয়াল, পাঞ্জাবি, শাড়ি, সালোয়ার-কামিজ, টপস-স্কার্ট, ফ্লোর টাচ লং সিল্ভ অথবা আনারকলি পোশাকের সঙ্গেও ব্যবহৃত হচ্ছে কোটি।

বসুন্ধরা শপিং কমপ্লেক্স, নিউমার্কেট, বনানী, মিরপুর শপিংমল, গুলশান এছাড়া ফুটপাথের সব দোকানেই শীতের পোশাক পাওয়া যাবে। দেশীয় ফ্যাশন হাউসগুলোর শোরুমেও পাওয়া যাবে বিভিন্ন কালেকশন।

বিভিন্ন দোকানে দাম ভিন্ন ভিন্ন ধরনের হয়ে থাকে। এছাড়া শীতের শুরুতে এক দাম আবার শীত বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে দামও বেড়ে যায়। দেশীয় ফ্যাশন হাউসগুলোতে তুলনামূলকভাবে মান ভালো থাকে। তবে এক্ষেত্রে দামে কিছুটা ভিন্নতা পাওয়া যায়।

খবরঃ ডেইলি সানশাইন

1 thought on “হালকা শীতের ফ্যাশন

Comments are closed.