২৫১ আসনে ধানের শীষের বিজয় সুনিশ্চিত : মিনু

রাজশাহী

বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা মিজানুর রহমান মিনু বলেছেন, নির্বাচন ঘিরে এখন পর্যন্ত যে রক্ত ঝরানো হয়েছে তার পুরো দায় নির্বাচন কমিশনের। আরও রক্ত ঝরলে তারও দায় নির্বাচন কমিশনকেই নিতে হবে।

বুধবার রাজশাহীতে সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন মিনু। বেলা ১১টার দিকে নগর বিএনপি কার্যালয়ে এ সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়।

মিনু অভিযোগ করেন, নির্বাচন কমিশন ক্ষমতাসীনদের আজ্ঞাবহ। নিরপেক্ষতা প্রমাণে ব্যর্থ হয়েছে নির্বাচন কমিশন। এ জন্য প্রধান নির্বাচন কমিশনারের পদত্যাগ চাই। একই সঙ্গে বিচার বিভাগীয় তদন্তের মাধ্যমে তার শাস্তি চাই।

মিজানুর রহমান মিনু আরও বলেন, নির্বাচনে লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড নেই। ধানের শীষের নেতাকর্মীরা প্রতিনিয়ত হামলা-মামলা-গ্রেফতার ও হয়রানির শিকার হচ্ছে। এখন পর্যন্ত কেবল রাজশাহী সদরেই বিএনপির ৫৯ নেতাকর্মীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। অবিলম্বে তাদের মুক্তি চাই।

মিনু বলেন, রাজশাহীর মানুষের হৃদয়ে ধানের শীষ গেঁথে আছে। রাজশাহীর ছয়টিসহ সারা দেশে ২৫১টি আসনে ধানের শীষের বিজয় সুনিশ্চিত। ফলে আতঙ্কিত হয়ে দমন-পীড়ন শুরু করেছে ক্ষমতাসীনরা। আমাদের সামনে এখন দুটি রাস্তা। হয় শহীদ, নয়তো কারাবরণ। এসবে ভয় পায় না বিএনপি। ধানের শীষের জয় নিয়ে ঘরে ফিরব আমরা।

সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান ও রাজশাহী-১ (তানোর-গোদাগাড়ী) আসনে ধানের শীষের প্রার্থী ব্যারিস্টার আমিনুল হক বলেন, এলাকায় নির্বাচনী পরিবেশ নেই। নিজেদের নির্বাচনী কার্যালয়ে আগুন দিচ্ছে ক্ষমতাসীনরা। কিন্তু মামলা হচ্ছে ধানের শীষের নেতাকর্মীর নামে। সেই মামলায় গণগ্রেফতার হচ্ছেন নেতাকর্মীরা।

সংবাদ সম্মেলনে নগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক ও রাজশাহী-৩ (পবা-মোহনপুর) আসনে ধানের শীষের প্রার্থী অ্যাডভোকেট শফিকুল হক মিলন অভিযোগ করেন, এলাকাতে নৌকার বাহিনী ত্রাসের রাজত্ব কায়েম করেছে। বিধি ভেঙে তারা অপরাধমূলক কর্মকাণ্ড চালিয়ে যাচ্ছে। কিন্তু অভিযোগ দিয়েও প্রতিকার মিলছে না।

সংবাদ সম্মেলনে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন- বিএনপির চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা অ্যাডভোকেট কামরুল মনির, জেলা বিএনপির সভাপতি তোফাজ্জল হোসেন তপু, নগর বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক আসলাম সরকার ও জেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক গোলাম মোস্তফা মামুন প্রমুখ।

খবর কৃতজ্ঞতাঃ জাগোনিউজ২৪