৮ম পে-স্কেল পুনঃনির্ধারণের দাবিতে রাবিতে মানববন্ধন

ক্যাম্পাসের খবর রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়

প্রস্তাবিত অষ্টম জাতীয় পে-স্কেলে বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষকদের স্কেল পুনঃনির্ধারণের দাবিতে মানববন্ধন করেছে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি।
মঙ্গলবার (২ জুন) বেলা ১১টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের প্যারিস রোডে আয়োজিত মানববন্ধনে শিক্ষকদের জন্য সিলেকশন গ্রেড ও টাইম স্কেল অব্যাহত রাখারও দাবি জানানো হয়।

মানববন্ধন থেকে সিনিয়র অধ্যাপকদের বেতন স্কেল সিনিয়র সচিবদের সমান ও অধ্যাপকদের বেতন স্কেল পদায়িত সচিবদের সমান করে পুনঃনির্ধারণ এবং শিক্ষকদের সিলেকশন গ্রেড ও টাইম স্কেল রাখা এবং সহযোগী-সহকারী অধ্যাপক ও প্রভাষকদের বেতন কাঠামো অধ্যাপকদের বেতনের সঙ্গে সামঞ্জস্যপূর্ণ করার দাবি জানানো হয়। এছাড়া প্রত্যেক ধাপে সরকারি কর্মকর্তাদের জন্য নির্ধারিত অন্যান্য যে সুযোগ-সুবিধা দেওয়া হয় তা বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষকদের জন্যও নিশ্চিতের দাবি জানানো হয়।

মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, প্রস্তাবিত জাতীয় পে-স্কেলে মন্ত্রিপরিষদ বা মুখ্য সচিব ও সিনিয়র সচিবদের বেতন স্কেল আলাদা করে বাড়িয়ে দ্বিগুণ করা হয়েছে। পদায়িত সচিবদের জন্য নতুন একটি বেতন স্কেল করা হয়েছে। সিলেকশন গ্রেড ও টাইম স্কেল না দেওয়ায় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপকদের বেতন স্কেল সচিবদের থেকে দুইধাপ নামানো হয়েছে। শিক্ষকদের মূল বেতন সপ্তম বেতন কাঠামো থেকেও এক ধাপ কমিয়ে আনা হয়েছে।

এমন প্রস্তাবনায় বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষকদের ‘অবমূল্যায়িত’ করা হয়েছে উল্লেখ করে ক্ষোভ প্রকাশ করেন শিক্ষক সমিতির নেতৃবৃন্দ। তারা প্রস্তাবিত এ বেতন কাঠামোকে বৈষম্যমূলক উল্লেখ করে পুনর্বিবেচনা করার জন্য জোর দাবি জানান।

মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন, সমিতির সভাপতি আনন্দ কুমার সাহা, সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক রেজাউল করিম, কোষাধ্যক্ষ ওমর ফারুক সরকার, ভূতত্ত্ব ও খনিবিদ্যা বিভাগের অধ্যাপক খোন্দকার ইমামুল হক, ফলিত পদার্থ বিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক মামুনুর রশিদ তালুকদার, অর্থনীতি বিভাগের অধ্যাপক কেবিএম মাহবুবুর রহমান, ফলিত গণিত বিভাগের অধ্যাপক শামসুল আলম সরকার প্রমুখ।

সূত্র এবং কৃতজ্ঞতাঃ বাংলানিউজ২৪