চুরি গেছে ২.৯ কোটি ফেইবুক ব্যবহারকারীর তথ্য

তথ্য প্রযুক্তি

সবমিলিয়ে ২ কোটি ৯০ লাখ ব্যবহারকারীর তথ্য চুরি যাওয়ার কথা স্বীকার করেছে ফেইবুক কর্তৃপক্ষ। পাশপাশি তারা আরো আরো ৩ কোটি গ্রাহকের অ্যাকাউন্ট আক্রান্ত হওয়ার কথাও জানিয়েছে। গত মাসে এই সামজিক মাধ্যমটিতে নিরাপত্তা ত্রুটির বড় ধরনের হ্যাকিংয়ের ঘটনার কথা জানিয়েছিলে ফেসবুক কর্তৃপক্ষ।

গত সেপ্টেম্বরের শেষ দিকে ফেসবুক কর্তৃপক্ষ তাদের ‘ভিউ অ্যাজ’ ফিচারে নিরাপত্তা ত্রুটি পাওয়ার কথা জানিয়ে পাঁচ কোটির মত অ্যাকাউন্টের নিয়ন্ত্রণ বেহাত হওয়ার আশঙ্কা প্রকাশ করেছিল।

শুক্রবার এক বিবৃতিতে ফেসবুক কর্তৃপক্ষ বলেছে, আক্রান্ত অ্যাকাউন্টের সংখ্যা প্রাথমিক ধারণার চেয়ে কম। তারা ক্ষতিগ্রস্ত গ্রাহকদের প্রয়োজনীয় তথ্য ও পরামর্শ দিয়ে সহায়তা করছে বলেও জানিয়েছে।

তবে গ্রাহকদের একান্ত ব্যক্তিগত বা আর্থিক তথ্য হারিয়ে যাওয়ার কোনো প্রমাণ তারা এখনও পাওয়া যায়নি বলে দাবি করেছে ফেসবুক। এছাড়া ফেসবুকের চুরি যাওয়া তথ্য ব্যবহার করে অন্য কোনো ওয়েবসাইটে প্রবেশ করার তথ্যও খুঁজে পাওয়া যায়নি।

যে ২ কোটি ২৯ লাখ গ্রাহকের তথ্য চুরি গেছে তার মধ্যে দেড় কোটি ব্যবহারকারীর নাম, ফোন নম্বর, ইমেইল অ্যাড্রেসের মত তথ্য চুরি করেছে হ্যাকাররাG

আরও এক কোটি ৪০ লাখ গ্রাহকের ওই দুটি তথ্যের সঙ্গে জন্ম তারিখ, অবস্থান, ভাষা, রিলেশনশিপ স্ট্যাটাস, চাকরিদাতা সংক্রান্ত তথ্য, শিক্ষাগত তথ্য এবং বন্ধুদের তালিকা হ্যাকারদের হাতে গেছে।

এসব তথ্য ব্যবহার করে হ্যাকাররা নতুন একটি ফেসবুক আইডি সাজাতে পারে, যার মাধ্যমে একজন গ্রাহকের চাকরিদাতা বা কোনো বন্ধুর সামনে ফাঁদ পেতে তার পাসওয়ার্ড বা অন্যান্য তথ্য হাতিয়ে নিয়ে তার কম্পিউটারে আক্রমণ করতে পারে।

এছাড়া আরও এক কোটি অ্যাকাউন্টের নিয়ন্ত্রণ পেলেও হ্যাকাররা তাদের কোনো তথ্য চুরি করেনি বলে ফেসবুক কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে।

এ বিবৃতিতে ফেসবুক বলেছে, এফবিআই পুরো বিষয়টি তদন্ত করে দেখছে এবং আমরা তাদের সহযোগিতা দিয়ে যাচ্ছি। এই হ্যাকিংয়ের পেছনে কারা থাকতে পারে সে বিষয়ে কোনো কথা না বলার পরামর্শ দিয়েছে এফবিআই।

প্রসঙ্গত ‘ভিউ অ্যাজ’ হল ফেসবুকের একটি প্রাইভেসি ফিচার, যা ব্যবহার করে একজন ব্যবহারকারী জানতে পারেন, তার নিজের প্রোফাইল পেইজটি অন্য লোকের কাছে কেমন দেখায়।

সূত্র: রয়টার্স