খোন্দকার সিরাজুল হক আর​ নেই

ক্যাম্পাসের খবর রাজশাহী রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগের সাবেক সভাপতি ও বাংলা একাডেমি পুরস্কারপ্রাপ্ত অধ্যাপক খোন্দকার সিরাজুল হক মারা গেছেন (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)। তিন মাস লাইফ সাপোর্টে থাকার পর আজ বুধবার সন্ধ্যা ছয়টায় রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে তিনি শেষনিঃশ্বাস ত্যাগ করেন।
সিরাজুল হকের বড় ছেলে জাহাঙ্গীর সিরাজ বলেন, গত বছরের ২৬ ডিসেম্বর বাংলা একাডেমির বার্ষিক সাধারণ সভায় অংশ নিতে তাঁর বাবা ঢাকায় আসেন। ২৭ ডিসেম্বর রাত সাড়ে আটটার দিকে ইস্কাটনের এক আত্মীয়ের বাসায় হঠাৎ মস্তিষ্কে রক্তক্ষরণজনিত অসুখে আক্রান্ত হন। প্রথমে স্থানীয় একটি হাসপাতালে নেওয়া হয়। অবস্থার উন্নতি না হওয়ায় গত ১২ জানুয়ারি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) স্থানান্তর করা হয়। সপ্তাহ খানেক আগে তাঁকে রাজশাহীতে নিয়ে আসা হয়। রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে তিনি লাইফ সাপোর্টে ছিলেন।

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগের সভাপতি অমৃতলাল বালা বলেন, সর্বস্তরের মানুষের শ্রদ্ধা নিবেদনের জন্য কাল বৃহস্পতিবার বেলা ১১টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদুল্লাহ কলা ভবনের সামনে সিরাজুল হকের মরদেহ নেওয়া হবে। বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় জামে মসজিদে তাঁর প্রথম জানাজা অনুষ্ঠিত হবে। এরপর নগরের সাহেববাজার বড় মসজিদ প্রাঙ্গণে দ্বিতীয় জানাজা শেষে তাঁকে দাফন করা হবে।
গবেষণায় সামগ্রিক অবদানের স্বীকৃতিস্বরূপ ২০১২ সালে খোন্দকার সিরাজুল হক ‘বাংলা একাডেমি পুরস্কার’ পান। এ ছাড়া গবেষণা-সাহিত্যে সামগ্রিক অবদানের জন্য ‘সা’দত আলী আখন্দ সাহিত্য পুরস্কার ২০১১’ প্রদান করা হয় তাঁকে। ১৯৬৬ সালে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগে যোগদান করা এই গবেষক ২০০৬ সালের পর থেকে অবসর জীবন যাপন করছিলেন।

প্রথম আলো-http://www.prothom-alo.com/bangladesh/article/821947/%E0%A6%96%E0%A7%8B%E0%A6%A8%E0%A7%8D%E0%A6%A6%E0%A6%95%E0%A6%BE%E0%A6%B0-%E0%A6%B8%E0%A6%BF%E0%A6%B0%E0%A6%BE%E0%A6%9C%E0%A7%81%E0%A6%B2-%E0%A6%B9%E0%A6%95-%E0%A6%86%E0%A6%B0%E2%80%8B-%E0%A6%A8%E0%A7%87%E0%A6%87