রাজশাহীতে মেডিকেল ছাত্রীর আত্মহত্যা

ক্যাম্পাসের খবর রাজশাহী রাজশাহী মেডিকেল কলেজ

রাজশাহীতে গলায় ফাঁস দিয়ে ফাহিমা আক্তার চাঁদনী (২৫) নামে এক মেডিকেল ছাত্রী আত্মহত্যা করেছেন। বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে নগরীর দাসপুকুর এলাকার একটি বাসায় এ ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে রাতেই তার মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

নিহত চাঁদনী ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলার ফতেপুর গ্রামের রফিকুল ইসলামের মেয়ে। তিনি রাজশাহী মেডিকেল কলেজের এমবিবিএস ৫৫তম ব্যাচের শেষ বর্ষের ছাত্রী ছিলেন।

চাঁদনীর স্বামী সালেহীন রনি ও সহপাঠীরা জানান, রাত ১১টার দিকে চাঁদনীর স্বামী মোবাইল ফোনে তাকে না পেয়ে বিষয়টি তার বান্ধবীদের ফোন করে জানান। পরে বান্ধবীরা নগরীর রাজপাড়া থানার দাসপুকুর এলাকায় চাঁদনীর ভাড়া বাসায় গিয়ে বাইরে থেকে দরজা বন্ধ দেখতে পান। পরে এলাকার লোকজন ও বাড়ি মালিকের উপস্থিতিতে ঘরের দরজা ভেঙে ভেতরে সিলিং ফ্যানের সঙ্গে ঝুলন্ত অবস্থায় চাঁদনীকে পাওয়া যায়। দ্রুত তাকে উদ্ধার করে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালের জরুরি বিভাগে নেয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

নগরীর রাজপাড়া থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হাফিজুর রহমান জানান, শুক্রবার দুপুরের দিকে রামেক হাসপাতাল মর্গে চাঁদনীর মরদেহের ময়নাতদন্ত হয়েছে। পরে মরদেহ নিয়ে গেছেন স্বজনরা।

তিনি আরও বলেন, কী কারণে চাঁদনী আত্মহত্যা করেছে তা জানা যায়নি। তবে এ ঘটনায় থানায় একটি ইউডি (অস্বাভাবিক মৃত্যু) মামলা রুজু করা হয়েছে। ময়নাতদন্ত প্রতিবেদন পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

খবর কৃতজ্ঞতাঃ জাগোনিউজ২৪