সেক্স আইল্যান্ড ট্রিপ কি আছে এতে?

আন্তর্জাতিক

ঘুরে বেড়াতে পছন্দ করেন অনেকেই। আর যারা ঘুরে বেড়ানোর সাথে যৌনতাও উপভোগ করতে আগ্রহী তাদের আগ্রহ ‘সেক্স আইল্যান্ড ট্রিপ’কে ঘিরে। সম্প্রতি এই ‘সেক্স আইল্যান্ড ট্রিপ’ নিয়ে চলছে আলোচনা এবং সমালোচনার ঝড়।

কী আছে এই ‘সেক্স আইল্যান্ড ট্রিপ’-এ? এমন প্রশ্ন যে কারও মনেই জাগতে পারে। চারদিনের ক্যারিবিয়ান ব্রেক, হেলিকপ্টার রাইড, জাহাজে ভ্রমণ, ডিনার, স্পা, নাইট ক্লাব, ঘোড়ায় চড়ে ঘুরে বেড়ানো, অ্যালকোহল সবই আছে এই ট্রিপে। পুরো ট্রিপে সঙ্গিনী হিসেবে থাকবে ৬০জন নারী। যে প্রতিষ্ঠানটি বিতর্কিত এই ট্রিপের আয়োজন করেছে তারা একটি চোখ ছানাবড়া করা প্রমোশনাল ভিডিও তৈরি করেছে।

কলম্বিয়া উপকূলের রহস্যময় ক্যারিবিয়ান আইল্যান্ডে নভেম্বরের ২৪ থেকে ২৭ তারিখ পর্যন্ত চলবে ‘সেক্স আইল্যান্ড ট্রিপ।’

চমকপ্রদ একটি তথ্য জানিয়েছেন আয়োজকরা। ব্রিটিশ এক জনপ্রিয় পপ তারকাও নাকি অবকাশ যাপনের জন্য ‘সেক্স আইল্যান্ড ট্রিপ’কে বেছে নিয়েছেন। তবে তারকার গোপনীয়তার স্বার্থে নাম প্রকাশ করেননি তারা। চারদিনের এই ট্রিপের জন্য সেই তারকা এরইমধ্যে ৩১শ পাউন্ড অর্থ জমা দিয়ে দিয়েছেন আয়োজকদের কাছে। এছাড়াও প্রথম সারির আরেক আমেরিকান গায়কও নাকি ড্রাগ ফ্রেন্ডলি এই ট্রিপের প্রতি আগ্রহী।সেক্স আইল্যান্ড ট্রিপ

এরইমধ্যে যুক্তরাজ্য, যুক্তরাষ্ট্র, কানাডা, দুবাই, ফ্রান্স এবং অস্ট্রেলিয়ার ২৩ নাগরিক এই ট্রিপের জন্য নাম লিখিয়েছেন। নামেই পরিস্কার যে কী থাকবে চারদিনের আয়োজনে। একজন পুরুষ একইসঙ্গে ১৬ জন নারীর সঙ্গ উপভোগ করতে পারবেন বলে জানিয়েছেন আয়োজকরা। ট্রিপের তৃতীয় এবং চতুর্থ দিনে থাকবে জাহাজের প্রতিযোগিতা এবং ডিজে পার্টি।

ট্রিপের প্রমোশনাল ক্লিপটি প্রকাশের পরই ভাইরাল হয়ে যায় এবং সমালোচনার ঝড় ওঠে সামাজিক মাধ্যমে। স্থানীয় মেয়র জানান, ড্রাগ এবং সেক্স বিক্রির এই ট্রিপ একেবারেই গ্রহণযোগ্য নয়। এটা কোনভাবেই ট্যুরিজম হতে পারে না। অফিশিয়াল অনুমতি ছাড়া এই ট্রিপ কিছুতেই হতে পারে না বলেও জানান তিনি।

দ্য সান