রাজশাহীতে ভিজিএফ কার্ডে চালের পরিবর্তে গম!

রাজশাহী

আসন্ন ঈদ-উল-ফিতরে সরকারের বিশেষ সহায়তা (ভিজিএফ) পাচ্ছে রাজশাহী জেলার ১ লাখ ৫১ হাজার ১৬৭ পরিবার। ঈদের আগেই পরিবারগুলোর মাঝে ১০ কেজি করে চাল দেয়ার কথা। তবে চাল সংকটে গম দেয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছে খাদ্য দফতর। জেলার নয় উপজেলা ও চৌদ্দ পৌরসভার সুবিধাভোগী পরিবারগুলো চালের বদলে গম পাবে।

এ তথ্য নিশ্চিত করে জেলার বাগমারা উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মাসুদুর রহমান জানিয়েছেন, তাদের বরাদ্দ দেয়া হয়েছে চাল। কিন্তু উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক জানিয়েছেন তাদের সংগ্রহে চাল নেই। তারা গম বরাদ্দ দেবেন। বিষয়টি নিয়ে মিশ্র প্রতিক্রিয়া তৈরি হয়েছে।

ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেছেন জেলার সহকারী খাদ্য নিয়ন্ত্রক ও মোহনপুর উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক শফিকুল ইসলাম।

তিনি বলেন, এ সংক্রান্ত একটি চিঠি জেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রকের দফতরে এসেছে। তিনি মোহনপুরে থাকায় সেটি হাতে পাননি। শিগগিরই ওই চিঠির ভিত্তিতে পরবর্তী ব্যবস্থা নেবেন। তবে বরাবরই চাল দেয়া হয়েছে বলে জানান তিনি।

পরিস্থিতি বিবেচনায় গম বিতরণ করা হবে না বলে জানিয়েছেন জেলা ত্রাণ ও পূর্নবাসন কর্মকর্তা আমিনুল হক। তিনি বলেন, তারা চালই বরাদ্দ পেয়েছেন, বরাদ্দও দিয়েছেন। গম দেয়া হলে সল্প সময়ে সুবিধাভোগীদের তা নিয়ে বিড়ম্বনায় পড়তে হবে। যে উদ্দেশ্যে এ সহায়তা সেটিই ব্যাহত হবে।

তিনি আরো বলেন, দূর্যোগ ব্যবস্থাপনা মন্ত্রণালয় গত ১৪ জুন বিশেষ ভিজিএফ চাল বরাদ্দ দেয়। ওই দিনই তা সংশ্লিষ্ট উপজেলা ও পৌরসভায় বরাদ্দ দেয়া হয়েছে। এখন সংশ্লিষ্ট ইউনিয়নে ইউনিয়ন ভিজিএফ কমিটি দুস্থ পরিবারগুলোর তালিকা তৈরি করেছে।

পরে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার নেতৃত্বে উপজেলা ভিজিএফ কমিটি তা অনুমোদন দেবে। ঈদের আগেই বিশেষ এ ভিজিএফ বিতরণ হবে। প্রতিটি উপজেলায় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা চাল বিতরণ তদারকি করবেন। এনিয়ে অনিয়মের অভিযোগ এলে দ্রুত ব্যবস্থা নেয়া হবে বলেও জানান তিনি।

এদিকে জেলা ত্রাণ ও পূর্নবাসন দফতর জানিয়েছে, গত ১৪ জুন বরাদ্দ মিলেছে বিশেষ ভিজিএফ। ওই দিনই বরাদ্দ দেয়া হয়েছে জেলার নয় উপজেলা ও ১৪ পৌরসভায়। ঈদের আগেই তা পৌঁছে যাবে সুবিধাভোগীদের কাছে।

জানা গেছে, এ ঈদে জেলার নয় উপজেলায় ১ লাখ ৪ হাজার ৯৫৭ সুবিধাভোগী পরিবার ভিজিএফ পাচ্ছে। এর মধ্যে গোদাগাড়ীতে ১৮ হাজার ৮৮১, তানোরে ১০ হাজার ৬৬৫, বাগমারায় ১৭ হাজার ৫৩৯, বাঘায় ৮ হাজার ৮০০, পুঠিয়ায় ৯ হাজার ৬৯৫, মোহনপুরে ৭ হাজার ৭৮৩, চারঘাটে ১৪ হাজার ৩৪৭, দুর্গাপুরে ৯ হাজার ৭৪৮ এবং পবায় ৭ হাজার ৫০৮ পবার এ সহায়তা পাচ্ছে।

অন্যদিকে, জেলার চৌদ্দ পৌরসভায় ৪১ হাজার ৫৮৯ পরিবার পাচ্ছে বিশেষ ভিজিএফ। এর মধ্যে ক-ক্যাটাগরির গোদাগাড়ী, নওহাটা, তাহেরপুর কাঁকনহাট পৌরসভার প্রত্যেকটিতে ৪ হাজার ৬২১ পরিবার এ সহায়তা পাচ্ছে। তালিকার দ্বিতীয় অবস্থানে থাকা খ-ক্যাটাগরির মুন্ডমালা, বাঘা, কেশরহাট, চারঘাট, দুর্গাপুর, আড়ানী, ভবানীগঞ্জ ও পুঠিয়া পৌরসভায় সুবিধাভোগী পরিবার ৩ হাজার ৮১ করে।

আর তালিকার নিচের দিকের থাকা গ-ক্যাটাগরির তানোর ও কাটাখালি পৌরসভায় ১ হাজার ৫৪০ পরিবারকে এ বরাদ্দ দেয়া হয়েছে।

খবরঃ জাগো নিউজ

1 thought on “রাজশাহীতে ভিজিএফ কার্ডে চালের পরিবর্তে গম!

Comments are closed.