রাজশাহীতে ঈদের ফিরতি টিকিট নিয়ে হুলুস্থূল কাণ্ড

রাজশাহী

ঈদের ফিরতি টিকিট বিক্রির প্রথমদিনেই হুলুস্থূল কাণ্ড ঘটেছে রাজশাহী রেলওয়ে স্টেশনে।

শনিবার (৯ জুন) সকাল ৮টায় টিকিট বিক্রি শুরুর মাত্র ২০ মিনিটের মাথায় টিকিট নেই বলে বিক্রি বন্ধ করে দেওয়া হয়। পরে এ নিয়ে জনরোষ সৃষ্টি হয়। একপর্যায়ে লম্বা লাইনে দাঁড়িয়ে থাকা টিকিট-প্রত্যাশীরা ঈদের ফিরতি টিকিটের জন্য বিক্ষোভ শুরু করেন।

পরে রেলওয়ে পুলিশ ও র‌্যাব সদস্যরা ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। খবর পেয়ে টিকিট কালোবাজারিদের ধরতে সেখানে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে জেলা প্রশাসন। এ সময় ঈদের ফিরতি টিকিট কালোবাজারির অভিযোগে দুই নারীসহ ছয়জনকে আটক করা হয়।

আটককৃতরা হলেন- দুলাল হোসেন, সানোয়ার হোসেন, বাপ্পি, দুলাল শেখ, মাহাবুবা থাতুন ও রেখা খাতুন। এদের মধ্যে সানোয়ার হোসেন ও দুলাল শেখকে মুচলেকা নিয়ে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে। বাকি চারজনের প্রত্যেককে বাংলাদেশ রেলওয়ে আইনে ৫শ টাকা করে জরিমানা করা হয়েছে।

রাজশাহী জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আনিসুর রহমান বাংলানিউজকে জানান, রেলওয়ে স্টেশনে টিকিট কালোবাজারির অভিযোগে অভিযান চালিয়ে তাদের আটক করা হয়।

পরে তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হয়। রাজশাহী রেলওয়ে স্টেশনে ফিরতি টিকিট বিক্রির শেষ দিন পর্যন্ত জনস্বার্থে ভ্রাম্যমাণ আাদালতের এই অভিযান চলবে। এজন্য পুলিশ ও র‌্যাব জেলা প্রশাসনকে সহযোগিতা করছে বলেও জানান জেলা নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আনিসুর রহমান।

এদিকে এ ঘটনায় সকাল সাড়ের ৮টার পর থেকে প্রায় তিনঘণ্টা টিকিট বিক্রি বন্ধ থাকে। এ সময় টিকিট না পেয়ে অনেকেই হতাশ হয়ে বাড়ি ফিরে যান। তবে ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান শেষে বেলা সাড়ে ১১টার পর থেকে আবারও টিকিট কাউন্টারগুলো খুলে দেওয়া হয়।টিকিট-প্রত্যাশীরা আবারও লম্বা লাইন ধরেন। বর্তমানে টিকিট কালোবাজারিদের ঠেকাতে রেলওয়ে পুলিশ, বোয়ালিয়া থানা পুলিশ ও র‌্যাব-৫ এর সদস্যরা স্টেশনে অবস্থান নিয়েছেন।

জানতে চাইলে রাজশাহী রেলওয়ে স্টেশনের সুপারিন্টেনডেন্ট গোলাম মোস্তফা বাংলানিউজকে বলেন, এ বিষয়ে তার কিছু জানা নেই। সকাল থেকে ফিরতি টিকিট বিক্রি শুরু হয়েছে।

স্টেশনের ভেতরে টিকিট কালোবাজারিদের ঠেকাতে ভ্রাম্যমাণ আদালতের নেতৃত্বে রেলওয়ে পুলিশসহ আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা সতর্ক অবস্থানে রয়েছেন। এর সঙ্গে যদি রেলওয়ের কোনো কর্মকর্তা বা কর্মচারীরও সম্পৃক্ততা পাওয়া যায় তাহলেও তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

রাজশাহী রেলওয়ে স্টেশন সুপারিন্টেনডেন্ট গোলাম মোস্তফা বাংলানিউজকে জানান, শনিবার প্রথমদিনে ১৮ জুনের (সোমবার) অগাম ফিরতি টিকিট বিক্রি করা হচ্ছে। রোববার ১০ জুন ১৯ জুনের (মঙ্গলবার) ফিরতি টিকিট বিক্রি করা হবে। এছাড়া ১১ জুন ২০ জুনের (বুধবার), ১২ জুন ২১ জুনের (বৃহস্পতিবার), ১৩ জুন ২২ জুনের (শুক্রবার), ১৪ জুন ২৩ জুনের (শনিবার) এবং ১৬ জুন ২৪ জুনের (রোববার) ফিরতি টিকিট পর্যায়ক্রমে বিক্রি করা হবে বলেও জানান গোলাম মোস্তফা।

খবর কৃতজ্ঞতাঃ বাংলানিউজ২৪