রাজশাহীতে দিনভর বৃষ্টি: কারও বিনোদন, কারও অস্বস্তি

রাজশাহী

রাজশাহীতে বুধবার গভীর রাত থেকেই শরু হয়েছে বৃষ্টি। রাতে বৃষ্টিপাত স্থানীয়রা উপভোগ করলেও, বৃহস্পতিবার বেলা বাড়ার সাথে সাথে কর্মব্যস্ত নগরবাসীকে বিড়ম্বনায় পড়তে হচ্ছে। আবহাওয়া অফিস জানিয়েছে উপকূলের ঘুর্র্ণিঝড় ‘তিতলি’ এর প্রভাবে সারাদেশের মতো রাজশাহীতেও নিম্নচাপ দেখা দিয়েছে। তারই প্রভাবে এই বৃষ্টিপাতের সৃষ্টি। থাকতে পারে আজ পুরোটা দিন। গত ১২ ঘন্টায় রাজশাহীতে বৃষ্টিপাত রেকড করা হয়েছে ৫০ দশমিক ৬ মিলি মিটার।
এদিকে বৃষ্টির অজুহাতে যাববাহনের ভাড়া ও কাঁচা বাজারগুলোতে তরিতরকারীর মূল্য বৃদ্ধির অভিযোগ করছেন স্থানীয়রা।

আশ্বিনের আজ ২৬ তারিখ। সে হিসেবে বাংলার এ মাসের শুরুতেই কিছুটা শীত অনুভূত হবার কথ। তবে আশ্বিনের এই শেষ বেলাতেও দিনভর চৈত্রের মতো প্রখর রোদ্রের তাপে নগরবাসী অস্বস্তি অনুভব করে আসছিল। এরই মাঝে আবহাওয়ার বিরূপ প্রভাবে নগরবাসীর মাঝে ডায়রিয়াসহ নানাবিধ সিজনাল অসুখ-বিসুখ ভর করে বসেছিল। তবে স্বস্তি জাগিয়ে বুধবার দিবাগত রাত আনুমানিক ১২টা থেকে শুরু হয় স্বস্তির বৃষ্ঠি। অবশ্য বুধবার সন্ধ্যা থেকেই নগরীতে মৃদু ঝড়ো হাওয়া এই বৃষ্টির পূর্বাভাসই দিয়ে আসছিল।

এদিকে বেলা গড়িয়ে যাবার সাথে সাথে বৃষ্টি না কমায় কর্মব্যস্ত নগরবাসীর মাঝে এর বিরূপ প্রভাব পড়তে শুরু করেছে। সকালে স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীদের তাদের নিজ নিজ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে যেতে বেগ পেতে হয়েছে। এছাড়া নগরীর বিভিন্ন অফিস-আদলতেও বৃষ্টির প্রভাবে দেখা দিয়েছে। নগরীর ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানসহ দোকনপাট দেরিতে খুলেছে। বৃষ্টির কারণে সকালে অনেকেই কাঁচা বাজর করতে পারেনি। ফলে কাঁচা তরিকরকারীর ব্যবসায়ীদের ওপরও বৃষ্টির বিরূপ প্রভাব দেখা দিয়েছে। এছাড়া সবজি ব্যবসায়ীরাও বৃষ্টির অজুহাতে তরিতরকারীর দাম বাড়িয়ে বসেছেন। সবচাইতে বেশি বড়ম্বনায় পড়েছে দিনমজুরদের। তাদের অনেকেই আজ কোন কাজ পাননি।

এদিকে রাত-দিন বৃষ্টির কারণে এরই মধ্যে নগরীর গুরুত্বপূর্ণ বেশ কিছু সড়সহ ওলিগোলিতে পানি জমে গেছে। ফলে নগরবাসীকে চলাচলে বেগ পেতে হচ্ছে। যানবাহনেরও স্বল্পতা রয়েছে। রিক্সা ওয়ালাদের বিরুদ্ধে বেশি ভাড়া আদায়ের অভিযোগ উঠেছে।
সকাল ১০টায় গ্রেটার রোডের কাছে ডালা ও কোদাল নিয়ে থাকা দিনমজুর আসলাম বলেন, সকাল থেকে যেভাবে বৃষ্টি হচ্ছে তাতে মনে হয় আজ আর কোন কাজ পাবো না। সবজি বিক্রেতা লিয়াকত বলেন, দিনভর বৃষ্টিতে মাল যা কিনেছিলাম সবই প্রায় ওভাবেই থেকে গেলো। সমস্যা হবে না। কাল আবার বিক্রি করা যাবে। তবে আজকের আয়টা হলো না।
কলেজিয়েট স্কুলের শিক্ষার্থী আসিফ মুস্তফা বলেন, বৃষ্টির কারণে সকালে স্কুলে আসতে ভাড়া বেশি দিতে হয়েছে রিক্সা ওয়ালাকে। তারা এখন ২০টাকার ভাড়া ৪০টাকা চাচ্ছে। কিছু করার নাই স্কুলে আসতে হবে তাই ভাড়া বেশি দিয়েই আসতে হলো।

এদিকে রাজশাহী আবহাওয়া অফিসের দেয়া তথ্য মতে, রাজশাহীতে গত রাত একটা থেকে বৃহস্পতিবার একটা পর্যন্ত এই ১২ঘন্টায় বৃষ্টিপাত রেকড করা হয়েছে ৫০ দশমিক ৬ মিলি মিটার। রাজশাহীতে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে ২৩ দশমিক ৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত বৃষ্টিপাত চলছিল।

খবর কৃতজ্ঞতাঃ ডেইলি সানশাইন