পুলিশকে সন্দেহ হলেই ডোপ টেস্ট : আইজিপি

রাজশাহী

পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি) মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী বলেছেন, সন্দেহভাজন মাদকাসক্ত পুলিশ সদস্যদের ডোপ টেস্ট করার উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। এ উদ্যোগ বাস্তবায়নের জন্য কঠোর নির্দেশনা দেয়া হয়েছে।

মঙ্গলবার সকালে রাজশাহী পুলিশ লাইনে নারী ব্যারাক ভবনের উদ্বোধন শেষে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে এ কথা জানান আইজিপি।

তিনি বলেন, পুলিশের যে সদস্যদের আচার-ব্যবহার ও অন্যান্য লক্ষণ দেখে সন্দেহ হবে, তাদের ডোপ টেস্টের মুখোমুখি হতে হবে। এ জন্য পুলিশের সব ইউনিটপ্রধানকে এরই মধ্যে নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

এর আগে রাজশাহী পুলিশ লাইনে বাংলাদেশ পুলিশ নারী কল্যাণ সমিতির কার্যালয় উদ্বোধন করেন আইজিপির স্ত্রী হাবিবা জাবেদ।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন- পুলিশের রাজশাহী রেঞ্জের উপ-মহাপরিদর্শক (ডিআইজি) এম খুরশিদ হোসেন, রাজশাহী মেট্রোপলিটন পুলিশের (আরএমপি) কমিশনার একেএম হাফিজ আক্তার, জেলার পুলিশ সুপার (এসপি) মো. শহিদুল্লাহসহ ঊর্ধ্বতন পুলিশ কর্মকর্তারা।

IGP-police2

রাজশাহী পুলিশ লাইনে নারী ব্যারাক ভবনের উদ্বোধন শেষে দুপুরে নাটোর যান আইজিপি। সেখানে নাটোর পুলিশ লাইন স্কুল অ্যান্ড কলেজের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন তিনি।

এ সময় আইজিপি জাবেদ পাটোয়ারী বলেন, সবসময় বড় বড় স্বপ্ন দেখতে হবে। সেই স্বপ্ন মনের ভেতরে গেঁথে পূরণের জন্য অপক্ষো করতে হবে। তবেই অভীষ্ট লক্ষ্যে পৌঁছানো যাবে। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু ১৯৪৮ সালে স্বাধীন বাংলাদেশের স্বপ্ন দেখেছিলেন। ১৯৭১ সালে তার সেই স্বপ্ন বাস্তবে পরিণত করেছিলেন। ভালো মানুষ হিসেবে নিজেকে গড়ে তুলতে হবে।

তিনি বলেন, সমাজ, বাবা-মা ও শিক্ষকদের প্রতি সঠিকভাবে দায়িত্ব ও কর্তব্য পালন করতে হবে। ছোট ছোট দায়িত্ব ও কর্তব্য পালনের মাধ্যমেই নিজেদের সামনে এগিয়ে নিতে হবে। একপর্যায়ে সুনাগরিক হিসেবে গড়ে উঠতে পারবে।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন- পুলিশের রাজশাহী রেঞ্জের ডিআইজি এম খুরশিদ হোসেন, নাটোর-৪ আসনের সংসদ সদস্য অধ্যাপক আব্দুল কুদ্দুস, নাটোর-১ আসনের সংসদ সদস্য শহিদুল ইসলাম বকুল, নাটোরের পুলিশ সুপার সাইফুল্লাহ আল মামুন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আকরামুল হোসেন ও জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান সাজেদুর রহমান খান প্রমুখ।

খবর কৃতজ্ঞতাঃ জাগোনিউজ২৪